বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের কনভয়ে হামলা। দেখানো হয় কালো পতাকা। দেওয়া হো ব্যাক স্লোগান, রণক্ষেত্র আলিপুরদুয়ার। কাঠগড়ায় গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। যদিও এখনও অবধি এই ঘটনা বিজেপি তথা দিলীপ ঘোষের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন, ১৫ শতাংশ বেতন বৃদ্ধি, দিওয়ালির আগে বড়সড় সুখবর, জানুন আওতায় আছেন কারা

 

বেআইনিভাবে র‍্যালি যাওয়ার অভিযোগ

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জঁয়গাতে জনসবায় যোগ দিতে যাচ্ছিলেন। যাওয়ার পথে দলসিংপাড়াতে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়। পুলিশের দাবি, ২৫ টি বাইক নিয়ে সঙ্গে যাওয়ার জন্য অনুমতি নিয়েছিল বিজেপি। অনুমতি থাকা সত্ত্বেও কমপক্ষে ১০০ টি বাইক নিয়ে যেতেই দিলীপ ঘোষের রাজনৈতিক কর্মসূচীতে বাঁধা দেয় পুলিশ। এরপরেই শুরু হয় ধুন্ধুমার কান্ড।পুলিশের কর্ডন ভেঙে বেআইনিভাবে র‍্যালি যাওয়ার অভিযোগ ওঠে দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন, লোকাল ট্রেনের সংখ্যা বাড়ছে কি, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে আজ বৈঠকে রাজ্য-রেল

 

 

 

কনভয় লক্ষ্য করে পাথরবৃষ্টি, গাড়িতে ভাঙচুর

এরপর জয়গাঁর মঙ্গলাবাড়িতে পৌছয় সেই র‍্যালি। অভিযোগ ,সেখানে বিজেপি রাজ্য সভাপতির কনভয় লক্ষ্য করে পাথরবৃষ্টি হয়। গাড়ির কাঁচও ভাঙে। দিলীপ ঘোষকে দেওয়া হয়  হো ব্যাক স্লোগান। দেখানো হয় কালো পতাকা।  এরপর কোনওরকমেও তিনি সভায় উপস্থিত হন। দিলীপ ঘোষের পাশাপাশি কালচিনির বিধায়ক উইলসন চম্প্রামরির গাড়িতেও ব্যাপক ভাঙচুর করা হয়।