জঙ্গলে গরু আনতে গিয়ে পথ হারিয়ে ফেলেছিলেন। বনকর্মীদের ছোঁড়া গুলিতে বেঘোরে প্রাণ গেল এক যুবকের। ঘটনার প্রতিবাদে বনদপ্তরের বিট অফিস ও গাড়িতে ভাঙচুর চালালেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তুমুল উত্তেজনা ছড়াল আলিপুরদুয়ারের কালচিনি-তে।

আরও পড়ুন: বিলুপ্তপ্রায় ক্লাউডেড লেপার্ড-এর চামড়া পাচারের চেষ্টা, দুই বিদেশিকে ধরল পুলিশ

মৃতের নাম বিমল রাভা।  বাড়ি, কালচিনি-র উত্তর মেন্দাবাড়ি এলাকায়।  বছর তেত্রিশের ওই যুবক মানসিকভাবে সুস্থ নন। অন্তত তেমনই দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের। তাঁদের বক্তব্য, রবিবার বিকেলে গরু আনতে স্থানীয় মন্থরাম বিটের জঙ্গলে ঢুকেছিলেন বিমল। ফেরার সময়ে পথ হারিয়ে ফেলেন তিনি। সোমবার ভোরে যখন বাড়ির কাছাকাছি পৌঁছন, তখন চোরাশিকারী ভেবে বিমলকে লক্ষ্য করে বনকর্মীরা গুলি চালান বলে অভিযোগ। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই যুবককে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে। হাসপাতালে বিমল রাভাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।  

আরও পড়ুন: বিপদে বন্ধু এয়ার অ্যাম্বুল্যান্স,গঙ্গাসাগর থেকে কলকাতার হাসপাতালে তীর্থযাত্রী

এদিকে এই ঘটনা জানাজানি হতেই পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে।  কালচিনি-র কোদালবস্তি রেঞ্জে বনদপ্তরের বিট অফিসে চড়াও হন স্থানীয় বাসিন্দারা। শুরু হয়ে যায় ভাঙচুর। ভাঙচুর চলে বনদপ্তরের একটি গাড়িতেও। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে বিশাল পুলিশবাহিনী। কিন্তু শেষ খবর অনুযায়ী, পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। বিক্ষোভ জারি রেখেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।