একসঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে নির্বাচনে লড়বে বিজেপি-কংগ্রেস! রবিবার রাজধানীর রাজনৈতিক মহলে এরকমই চাঞ্চল্যকর গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে। এর উৎস বিতর্কিত আপ নেতা সোমনাথ ভারতী। এদিন তিনি একটি টুইট করে দাবি করেছেন দিল্লি বিধানস,বা নির্বাচনে নয়া দিল্লি আসনে আপ প্রধান তথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বিরুদ্ধে যৌথ প্রার্থী দিতে চলেছে বিজেপি ও কংগ্রেস।

আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। তার আগে সবার প্রথম দিল্লির ৭০ টি আসনের জন্যই প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে আম আদমি পার্টি। তারপর বিজেপি ৫৭টি আসনের ও কংগ্রেস ৫৪ টি আসনের প্রার্থি তালিকা ঘোষণা করেছে। মজার বিষয় দুই সর্বভারতীয় দলের কেউই নয়াদিল্লি আসনে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বিরুদ্ধে কে প্রার্থী হবেন তা এখনও জানায়নি।

রবিবার দুপুরে, আপ বিধায়ক সোমনাথ ভারতী টুইট করে দাবি করেন, 'শোনা যাচ্ছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বিরুদ্ধে যৌথ প্রার্থী দেওয়ার জন্য আলোচনা চালাচ্ছে বিজেপি ও কংগ্রেস। যদি এটা সত্যি হয়, তবে তার থেকেই পরিষ্কার আপের পক্ষে কী পরিমাণ স্রোত রয়েছে'। তাঁর এই টুইট নিয়ে দিল্লির রাজনৈতিক মহলে আপাতত তীব্র গুঞ্জন ছড়িয়েছে।

গতবার দিল্লির মালভিয়া নগর কেন্দ্র থেকে জয়ী হন সোমনাথ। কিন্তু, ২০১৯ সালে দিল্লির এক আদালতে তাঁর বিরুদ্ধে তাঁর স্ত্রী-এর আনা হেনস্থা, প্রতারণা, অপরাধমূলক ভয় দেখানো, গার্ঙস্থ্য হিংসার অভিযোগ প্রমাণিত হয়। কিন্তু তারপরও তাঁকেই ফের ওই আসন থেকেই টিকিট দিয়েছে আপ। শনিবারই তিনি মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারপরদিনই বোমা ফাটালেন তিনি।

এর আগে শোনা যাচ্ছিল নয়াদিল্লি আসনে নির্ভয়ার মা আশাদেবীকে প্রার্থী করতে পারে কংগ্রেস। তবে আশাদেবী জানিয়ে দিয়েছেন, রাজনীতি নিয়ে তাঁর কোনও আগ্রহ নেই। বিজেপি ও কংগ্রেস এখনও তাঁদের নির্বাচনের প্রধান মুখ খুঁজে না পাওয়ায় এই মুহূর্তে আপ-এর প্রচার, 'কেজরিওয়াল বনাম কে?' দারুণ জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। তবে শেষে অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে কংগ্রেস-এর 'হাত'-এ 'পদ্ম' উঠবে, এটা একটু বাড়াবাড়ি কল্পনা বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।