গত মাসেই বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী পালিত হয়েছে। আর তার ঠিক একসামের মধ্যেই গ্রেফতার করা হল তাঁর খুন তথা মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি ক্যাপ্টেন আবদুল মাজেদকে। ঢাকার মিরপুর থেকে সোমবার গভীর রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে পুলিশ সূত্রে জানা যাচ্ছে। 

আরও পড়ুন: রক্ষে পেল না বাঘমামাও, চিড়িয়াখানায় এবার করোনা সংক্রমণের শিকার ৪ বছরের নাদিয়া

বাংলাদেশএর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র শরীফ মাহমুদ অপু  ক্যাপ্টেন মাজেদকে গ্রেফতারের বিষয়টিতে শিলমোহর দিয়েছেন। মাজেদের গ্রেফতারির বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে রাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমকে বলেন, 'আমরা তাকে দেশে পেয়েছি। কেউ পুশব্যাক করেছে কিনা বলতে পারবো না।'

 

 

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবার নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডের পর থেকে ক্যাপ্টেন মাজেদসহ ৬ জন পলাতক ছিল। মাজেদ গ্রেফতার হওয়ার পর এখনও বঙ্গবন্ধুর পাঁচ খুনি পলাতক। এরা হল — খন্দকার আবদুর রশীদ, শরিফুল হক ডালিম, মোসলেম উদ্দিন, এস এইচ এম বি নূর চৌধুরী ও এ এম রাশেদ চৌধুরী। অভিযুক্তকার সকলেই দেশের প্রাক্তন সেনাকর্তা।

আরও পড়ুন: ৬২ শতাংশ করোনা রোগীই বিশ্বের ৫টি উন্নত দেশের, এখনও অনেকটাই নিরাপদে রয়েছে দক্ষিণ এশিয়া

এই পাঁচ খুনি বিভিন্ন দেশে পলাতক অবস্থায় আছেন। তাঁদের দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ সরকার। এদিকে জানা যাচ্ছে ক্যাপ্টেন আবদুল মাজেদর গ্রামের বাড়ি ভোলায়। মনে করা হচ্ছে,  বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারির কারণে  বাংলাদেশকে নিরাপদ ভেবে প্রবেশ করেছিল মাজেদ। কিন্তু তার আর শেষ রক্ষা হলো না।