সাইক্লোন আমফান-এর প্রথম বলি হলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্টের এক স্বেচ্ছাসেবক। বুধবার ঘূর্ণিঝড় আমফান-এর হাত থেকে গ্রামবাসীদের রক্ষা করতেই বেরিয়েছিলেন ওই স্বেচ্ছাসেবক। গ্রামবাসীদের একটি নৌকোয় করে নিরাপদ এলাকায় নিয়ে যাওয়ার সময় প্রবল ঝড়ে নৌকোটি ডুবে যায়। আর তাতেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর।

স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা রেড ক্রিসেন্ট-এর বাংলাদেশি শাখার সাইক্লোন প্রিপারেশন প্রোগ্রামর ডিরেক্টর নুরুল ইসলাম খান সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, নৌকাডুবির সময় নৌকোটিতে চারজন ছিলেন। গ্রামবাসীদের নিরাপদে পাড়ে পৌঁছে দিলেও ওই স্বেচ্ছাসেবক রক্ষা পাননি।

১৯৯৯ সালের পর থেকে বঙ্গোপসাগরে এত তীব্র ঘূর্ণিঝড় এর আগে আর আসেনি বলেই জানিয়েছে বিভিন্ন দেশের আবহাওয়া দপ্তর। বুধবার বিকেলেই এই বিধ্বংসী ও মারাত্মক ঝড় স্থলভাগে প্রবেশ করেছে। এই ঝড়ের দাপটে একদিকে যেমন প্রচুর সম্পত্তির ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে, তেমনই ব্যাপক প্রাণহানিরও আশঙ্কা করা হচ্ছে। বাংলাদেশের হতভাগ্য স্বেচ্ছাসেবক-কে দিয়ে সম্ভবত তার সূচনা হল।