শোনা যাচ্ছিল সন্ধ্যাবেলা। অবশেষে মঙ্গলবার একটু রাত করেই মুম্বই থেকে কলকাতায় এসে পৌঁছল প্রয়াত অভিনেতা তথা প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ তাপস পাল-এর মরদেহ। মুম্বই থেকে দেহ নিয়ে এলেন স্ত্রী নন্দিনী ও অন্য়ান্য পরিজনেরা। এদিন রাতে দেহ রাখা থাকবে পিস হাভেনে। আগামীকাল বেলা ১১টা নাগাদ তাপস পালের দেহ নিয়ে যাওয়া হবে রবীন্দ্র সদনে। সেখানে শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের পর কেওড়াতলা মহাশ্মশানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হবে প্রয়াত অভিনেতার।

মঙ্গলবার ভোর ৩টে ৩৫ মিনিট নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তাপস পাল। সেই সময় পাশে ছিলেন স্ত্রী নন্দিনী দেবী ও কন্যা সোহিনী। গত ১ ফেব্রুয়ারি আমেরিকায় মেয়ের কাছেই যাবেন বলে বিমান ধরতে মুম্বই বিমানবন্দরে গিয়েছিলেন অভিনেতা। কিন্তু আচমকা হৃদরোগে আক্রান্ত হন। গত ১৫ দিন ধরে তাঁকে জীবনদায়ী ব্যবস্থার সাহায্যেই রাখা হয়েছিল। অবশেষে এদিন ভোরে তাঁর লড়াই শেষ হয়ে যায়। মৃত্যুর সময় তাঁর বয়স হয়েছিল ৬১ বছর।

রাজনীতিক হিসাবে 'কুকথা' বলে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন এই প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ। তবে তাঁর আসল পরিচয় অবশ্যই অভিনেতা। একসময় একের পর এক ছবিতে নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন তিনি। পরে চরিত্রাভিনয়েও দেখা গিয়েছিল। স্বাভাবিকভাবেই তাপস পালের প্রয়াণ সংবাদে টলি পাড়ায় শোকের ছায়া নেমেছে। তাঁকে শেষ। শ্রদ্ধা জানাতে বুধবার অনেকেই রবীন্দ্রসদনে আসবেন। শোকপ্রকাশ করেছেন বলিউড অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিত-ও। তাপসপালের ছেলেবেলার শহর চন্দননগরেও রয়েছে বিষাদের সুর।