৬৬তম চলচ্চিত্র জাতীয় পুরষ্কারে পুরষ্কৃত হল এক যে ছিল রাজা। চলতি বছরে একের পর এক পুরষ্কারে সন্মানিত হয়েছেন এই ছবির পরিচালক সৃজিৎ মুখোপাধ্যায়। এবার বছরের সেরা ছবির পুরষ্কারও তিনি রাখলেন নিজের দখলে। পাশাপাশি ফেলুদা তথ্যচিত্রের জন্য সেরা ডেবিউ পরিচালকের পুরষ্কারও পেলেন সাগ্নিক চট্টোপাধ্যায়, পাশাপাশি তারিখ ছবির জন্য সেরা সংলাপ লিখে আবারও জাতীয় পুরষ্কার নিজের দখলে রাখলেন চুর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়। সঙ্গে বিশেষ জুরি পুরষ্কার পায় ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্তের ছবি কেদার।

সন্যাসী রাজা ছবি অবলম্বণে তৈরি এই ছবিকে ঘিরে প্রথম থেকেই আশাবাদী ছিলেন পরিচালক। একের পর এক সেরা পুরষ্কার এখন এক যে ছিল রাজা ছবির ঝুলিতে। অনবদ্য ছিল যিশু সেনগুপ্তের অভিনয়। বিগ বাজেটের এই ছবিতে ভাওয়াল সন্যাসী কেসের মোড়কে সাজিয়ে তুলেছিলেন তিনি। যার ফলে ছবির আদ্যপান্ত জুড়ে ছিল টানটান উত্তেজনা। সেই ছবিই এবার পরিচালকের ঝুলিতে এনে দিল সেরা ছবির পুরষ্কার।

আরও পড়ুনঃ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কারের ঘোষণা, বাংলার ভাগে এল কোন সন্মান

সম্প্রতিই মুক্তি পেয়েছিল ফেলুদা-কে নিয়ে তৈরি তথ্যচিত্র। সেই ছবিতেই পরিচালক হিসেবে প্রথম হাতে খড়ি হয় সাগ্নিক চট্টোপাধ্যায়। প্রথম ছবিতেই বাজিমাত। ডেবিউ পরিচালক হিসেবে জাতীয় পুরষ্কারে পুরষ্কৃত হলেন সাগ্নিক চট্টোপাধ্যায়।