প্রয়াত অভিনেতা ও প্রাক্তন সাংসদ তাপস পালের শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে আজ বুধবার। মঙ্গলবার রাতে তাঁর দেহ মুম্বই থেকে কলকাতায় আনা হয়। সারারাত বাড়িতেই ছিল অভিনেতার দেহ। বুধবার বেলা ১১টা নাগাদ বাড়ি থেকে দেহ নিয়ে যাওয়া হবে রবীন্দ্রসদনে। বিকেলে কেওড়াতলা মহাশ্মশানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় অভিনেতার শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

আরও পড়ুন, 'বড় অভিমান নিয়েই চলে গেলেন তাপসদা', মন খুললেন ঋতুপর্ণা

সূত্রের খবর,  ১ ফেব্রুয়ারি মেয়ের কাছে যাওয়ার জন্য বিমানবন্দর পৌঁছেছিলেন তাপস পাল। তখনই আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়েন। মুম্বই বিমানবন্দরে বুকে ব্যথা অনুভব করেন তিনি। তারপরই তাঁকে জুহুর হলিক্রস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। মঙ্গলবার ভোর ৩:৩৫ মিনিটে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় প্রাক্তন সাংসদের। এদিন রাতে তাঁর দেহ নিয়ে আসা হয় কলকাতায়। সঙ্গে ছিলেন শোকাহত স্ত্রী নন্দিনী পাল এবং অন্য আত্মীয় পরিজনরাও। বিমানবন্দর থেকে অভিনেতার দেহ নিয়ে যাওয়া হয় তাঁর বাড়িতে। সারারাত বাড়িতেই ছিল দেহ। বুধবার সকাল ১১টা নাগাদ তাঁর দেহ নিয়ে যাওয়া হবে রবীন্দ্রসদনে। সেখানে অভিনেতাকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করবেন বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। অনুরাগীরাও এদিন শ্রদ্ধা জানাতে পারবেন তাঁদের প্রিয় নায়ককে। তারপর কেওড়াতলা মহাশ্মশানে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।


উল্লেখ্য়,  ১৯৮৪তে হীরেন নাগের ছবিতে তাঁর বিপরীতে নায়িকা ছিলেন মাধুরী দীক্ষিত। রাখি গুলজারের সঙ্গেও অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। কিন্তু তাপস পাল পুরোপুরি বাংলার অভিনেতা। কলকাতায় তরুণ মজুমদারের ডাকে মুম্বই থেকে কলকাতা ফিরে এসে দেবশ্রী রায়ের সঙ্গে অভিনয় করেন 'ভালবাসা ভালবাসা' ছবিতে। ১৯৮৫-তে এই ছবি বক্স অফিসে বিপুল সাফল্য এনে দেয়। বাংলা ছবিতে তৈরি হয় দেবশ্রী-তাপস জুটি। 'অর্পণ', 'সুরের সাথী', 'সুরের আকাশে', 'নয়নমণি', 'চোখের আলোয়', 'তবু মনে রেখো'।'গুরুদক্ষিণা', 'বলিদান', 'কড়ি দিয়ে কিনলাম'র মতো একের পর এক সুপারহিট ছবি ছিল তাঁর ঝুলিতে। তপন সিংহ থেকে অঞ্জন চৌধুরী, অরবিন্দ মুখোপাধ্যায় থেকে তরুণ মজুমদার আশি থেকে নব্বই দশকের বাংলা চলচ্চিত্রের প্রেম-প্রতিবাদ সমস্ত আবেগের অন্য়তম সেই অভিনেতা, তাপস পাল।

আরও পড়ুন, 'স্তম্ভিত এবং শোকাহত', শোকবার্তায় তাপসকে তৃণমূল পরিবারের সদস্য বললেন মমতা

সূত্রের খবর, প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে হাসপাতালেই ভর্তি ছিলেন তাপস পাল।  গত মঙ্গলবার ভোররাতে দ্বিতীয়বার কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয় তাঁর। এরপরই তিনি মারা যান। তাঁর মৃত্যুসংবাদে শোকস্তব্ধ গোটা টলিউড পাড়া। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, সন্ধ্যা রায়, মাধবী মুখোপাধ্যায়, প্রসেনজিৎ,ঋতুপর্ণা থেকে শুরু করে নতুন প্রজন্মের দেব, মিমি, নুসরত, সোহম, পায়েল প্রায় সকলেই শোকপ্রকাশ করেছেন অভিনেতার মৃত্যুতে। বলিউড অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিতও স্মরণ করেন তাঁর কেরিয়ারের প্রথম অভিনেতা তাপস পালকে।