বৃহস্পতিবার সকালে প্রয়াত হন বর্ষীয়ান নাট্যকার ঊষা গঙ্গোপাধ্যায়। নাট্য জগতের মহীরুহের পতনে শোকের ছায়া নেমে আসে শিল্পী মহলে। ১৯৭৬ সালে রঙ্গকর্মী থিয়েটারের প্রিতষ্ঠা করেছিলেন তিনি। ভারতের এই জনপ্রিয় নাট্যকারের দীর্ঘ দিনের অবদান আজও ভারতীয়দের মনে গভীর দাগ কেটে রয়েছে। বাংলা থিয়েটার জগতে তাঁর অবদান অনস্বীকার্য। আজ তাঁর প্রয়াণে স্তব্ধ বাংলার সংস্কৃতি জগত। 

বৃহস্পতিবার দক্ষিণ কলকাতার বাড়িতে পাওয়া গিয়েছে ঊষা গঙ্গোপাধ্যায়ের মরদেহ। এদিন সকালে তাঁর পরিচারিকা বাড়িতে এসে দেখেন দরজা খোলা। ঘরের ভেতর পড়ে রয়েছেন ঊষাদেবী। মুহূর্তেডাকা হয় চিকিৎসককে। সেখান থেকেই তাঁর মরদেহ পাঠানো হয় পোস্টমর্টেমের জন্য। কেন এই ভাবে দরজা খুলে পড়ে ছিলেন তিনি, মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট হবে রিপোর্ট আসার পরই।

হিন্দিভাষী হয়েও তিনি বাংলা নাট্যজগতকে সমৃদ্ধ করেছিলেন। একের পর এক কালজয়ী থিয়েটার অন্তর্যাত্রা, মহাভোজ প্রভৃতি উপস্থাপনা করে নজর কেড়েছেন সকলের। তিনি একজন সমাজকর্মী হিসেবেও পরিচিত। জন্ম হয়েছিল ১৯৪৫ সালে রাজস্থানে। কর্মী জীবনে বহু পুরষ্কারও পেয়েছিলেন তিনি।