পরিচালক:রাজ শান্ডিল্য

অভিনেতা-অভিনেত্রী:আয়ুষ্মান খুরানা, অন্নু কাপুর, মনজ্যোত সিং, রাজেশ শর্মা, বিজয় রাজ, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, নুসরত ভারুচা, নিধি বিশত, রাজ ভনশালী।

গল্প:এই কাহিনির শুরু করমবীর সিং-এর ছোটবেলা থেকে। করমবীরের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন আয়ুষ্মান খুরানা। শহরের 'রামলীলায়' সীতার ভূমিকায় অভিনয়ের সুযোগ হঠাৎই যার কাছে চলে আসে। এবং সে করতে রাজিও হয়ে যায়। আসলে, ছোটবেলা থেকেই করম মিমিক্রি করতে ভালোবাসে এবং দক্ষতাও রয়েছে তার। অনায়াসে যে কোনও মহিলার গলা নকল করতে পারে সে। শুনলে চট করে কেউ ধরতেও পারবে না। চাকরির সন্ধানে করম এদিক সেদিক ঘুরতে থাকে। ঘুরতে ঘুরতে হঠাৎ সে এসে পড়ে একটি কল সেন্টারে। এই কল সেন্টারের মালিকের আবার একমাত্র কাজই হল। আর এই চরিত্রেই অভিনয় করেছেন রাজেশ শর্মা। তবে কল সেন্টারে রয়েছেন এমন কিছু মহিলা, যারা ফোনে বন্ধুত্ব ও ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে তোলে। আর এখানেই এসে পড়ে করম। ঘটনাচক্রে মিমিক্রি করে একটা ফোনেই সে ঝড় তুলে দেয় পুরুষ-হৃদয়ে। যাই হোক ধীরে ধীরে করমের উপার্জনও বাড়তে থাকে। বেকার করমের পকেট ফুলে ফেঁপে উঠতে থাকে।

আরও পড়ুন,'লিটল মি' ছোটবেলার স্মৃতিতে মগ্ন অনুষ্কা শর্মা, শেয়ার করলেন ছবি

অভিনয়:এই ছবিতে অভিনয় প্রতিভায় কেউ কম যান না। কারণ ফিল্মি কেরিয়ার-এর অভিজ্ঞতা এদের সকলেরই ভাণ্ডারে পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে। মানুষকে হাসানো সব থেকে কঠিন কাজ, তাই বলাই যায় এরা প্রত্যেকই নিজের অভিনয়ের জায়গায় সেরা। বরাবরের মতোই আয়ুষ্মান খুরানা, এই ছবিতেও তিনি নজরকাড়া অভিনয় করেছেন। আসলে বৈচিত্র্য তাঁর শিরায় শিরায়। রাজেশ  শর্মাও তার চরিত্রে যথাযথ। যদি ছবিটা শেষ অবধি দেখা যায়, তাহলে সেটা আয়ুষ্মান খুরানার জন্যেই। করম হোক কিংবা পূজা, দুটি চরিত্রকেই দক্ষতার সঙ্গে তিনি তুলে ধরেছেন তিনি। আর 'ভিকি ডোনার' ছবির মতই আয়ুষ্মান খুরানা ও অন্নু কাপুর আবার প্রমাণ করলেন, তাঁরা জুটি হিসেবে সেরা। 

আরও পড়ুন,তিরুপতি মন্দিরে সারতে চান বিয়ে, নিজের বিয়ে নিয়ে মুখ খুললেন শ্রীদেবি কন্যা
  
চিত্রনাট্য:'ড্রিম গার্ল' ছবিতে অনেক বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে  প্রধান চরিত্রটিকে তৈরি করা হয়েছে। মেয়েদের অধিকার নিয়ে এখানে কথা বলা হয়েছে । রাতের কল-সেন্টারে কাজ করা প্রতিটি মানুষেরই  একটি বড় সমস্যা হল একাকীত্ব। অন্য দিকে দেখতে গেলে এই ছবিটি  সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির কথা বলে।  ধূমপান ও মদ্যপান দিয়ে যে কখনোই  মানুষকে বিচার করা যায়না ,তার ইঙ্গিত ও দেওয়া হয়েছে। তার সঙ্গে পুরুষের মধ্যে যে সুপ্ত নারী সত্তা রয়েছে, সেটা নিয়েও বেশ অন্য একটা দৃষ্টিকোণ  দিয়েছেন পরিচালক তার 'ড্রিম গার্ল' ছবিতে ।  

প্রথমবার জুটি বাঁধলেন প্রসেনজিৎ-জয়া, প্রকাশ পেল 'রবিবার'-এর নতুন পোস্টার

  
সিনেমাটোগ্রাফিঃ সিনামাটোগ্রাফার অসীম মিশ্র  এই বছর  মোট দুটো ছবিতে কাজ করেছেন । একটা 'দ্য জোয়া ফ্যাক্টর ' এবং অপরটা 'ড্রিম গার্ল'। তবে প্রত্যেকটা ছবিতেই তার ক্যামেরার কাজ ভিন্ন মাত্রায় পৌঁছেছে। তাই হয়তো ছবি শেষ হওয়ার পরও কিছু কিছ মুহূর্ত বার বার ফিরে আসে।      
 
পরিচালনাঃ ২০১৫ এর ওয়েলকাম ব্যাক-এর পর দেখতে দেখতে এই নিয়ে রাজ শান্ডিল্য এই নিয়ে পাঁচটি ছবি করে ফেললেন। হাসির  ছবিটিকে পারিবারিক মশলা দিয়েই তিনি অন্য মাত্রা দিয়েছেন । তবে আবারও বলতেই হয় নিজস্ব প্রতিভা এবং পরিচালকের সুনিপুণ পরিচালনাতে ছবিটি সব মিলিয়ে উপভোগ্যে।। অভিজ্ঞতা আর অধিকার বোধের একটা সঠিক মেল বন্ধন করেছেন রাজ তাঁর এই ছবিতে।