বলিউডে ফের শোকের ছায়া। বছর ঘুরতে না ঘুরতেই ফের মৃত্যুশোকে আচ্ছন্ন বলিউডের কাপুর পরিবার। গত বছর ঋতু নন্দা ও ঋষি কাপুরের মৃত্যুর ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই চলে গেলেন রাজ কাপুরের ছোট ছেলে রাজীব কাপুর। মঙ্গলবার সকালেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল  রাজীব কাপুরের। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল মাত্র ৫৮ বছর। 

আরও পড়ুন-নুসরত-যশের প্রেমে কি পাকাপাকি ঢুকে পড়ল মিমি, উল্টো পথে কেন হাঁটছেন দুই 'বনুয়া'...

 

 

রাজীব কাপুরের দাদা, অভিনেতা রণধীর কাপুর সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন,  'আজ সকালেই রাজীব হৃদরোগে আক্রান্ত হয়। এবং তড়িঘড়ি তাকে চেম্বর ইনলাকস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ারহ পর চিকিত্সার  কোনও সুযোগ পাননি চিকিৎসকেরা। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরই রাজীবকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিত্সকরা'। ইনস্টাগ্রামে রাজীবের মৃত্যুর খবর জানিয়ে প্রয়াত দেওরকে শ্রদ্ধার্ঘ জানিয়েছেন ঋষি পত্নী নীতু কাপুর।

 

 

কাপুর পরিবারের ঐতিহ্য মেনেই বলিউডে নিজের কেরিয়ার গড়েছিলেন রাজীব কাপুর। কালজয়ী ছবি 'রাম তেরি গঙ্গা মেলি'-তে অভিনয়ের জন্য দর্শকের মণিকোঠায় আজও রয়ে গেছেন রাজীব কাপুর। 'রাম তেরি গঙ্গা মেলি' ছাড়াও    'জবরদস্ত ',  'হাম তো চলে পরদেশ ','আসমান ',  'লাভার বয় ',-এর মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন রাজীব কাপুর।  সালটা ১৯৮৩।

 

 

'এক জান হ্যায় হাম' ছবি দিয়েই  রুপোলি পর্দায় পথচলা শুরু করেছিলেন রাজ কাপুর পুত্র রাজীব কাপুর। শেষবারের মতো 'জমিনদার' (১৯৯০) ছবিতে অভিনয় করতে দেখা গেছে রাজীবকে। তবে তিন দশক ধরে রুপোলি পর্দাতে দেখা না গেলেও 'প্রেমগ্রন্থ' নামে একটি ছবিও পরিচালনা করেছিলেন রাজীব। এছাড়াও ঋষি কাপুর পরিচালিত ছবি 'আ আব লট চলে'-র প্রযোজক এবং সম্পাদকের ভূমিকাতেও দেখা গিয়েছিল প্রয়াত অভিনেতা রাজীব কাপুরকে।