মায়ের মৃত্যু শোক সহ্য করতে পারলেন না ইরফান খান। জীবন যুদ্ধে হার মেনে বুধবার সকাল দশটা নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন অভিনেতা। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর। মুম্বইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল ইরফানকে মঙ্গলবার। ২০১৮ সাল থেকেই ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করছিলেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় পরিচালক সুজিত সরকার প্রথম খবর প্রকাশ্যে নিয়ে আসেন। অভিনেতার দেশ জুড়ে মৃত্যুকে শোকের ছায়া।  

কয়েকদিন আগেই প্রয়াত হয়েছিলেন ইরফান খানের মা। মায়ের সঙ্গে শেষ দেখা আর হয়নি তাঁর। লকডাউন দুরে সরিয়ে রেখেছিল মা-সন্তানকে। তবে মৃত্যুশোক নিতে পারলেন না বোধ হয় ইরফান। সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই জীবন যুদ্ধে হার মানলেন অভিনেতা। হঠাৎই মঙ্গলবার সকাল থেকে স্বাস্থ্যের অবস্থা খারাপ হতে থাকে। তড়িঘড়ি তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ছিলেন আইসিইউতে। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় সুজিত সরকারের পোস্টে পরই খবর ছড়িয়ে পড়ে। একের পর এক তারকারা শোক বার্তা জানাতে থাকেন। আংরেজি মিডিয়াম ছবি মুক্তির পরই তা লকডাউনে চলে গিয়েছিল দেশ। সেই ছিল শেষ, এরপর আর পর্দায় নতুন চরিত্রে ধরা দেবেন না অভিনেতা, তখন তা জানা ছিল না কারুর। ক্যান্সারও পারেনি তাঁকে দমিয়ে রাখতে, একের পর এক ছবি উপহার দিয়েছেন দর্শকদের। আর তাঁর মৃত্যুতে স্তব্ধ গোটা দেশ। 

করোনা মোকাবিলায় রক্ষা করুন নিজেকে, মেনে চলুন 'হু' এর পরামর্শ

সাবধান, করোনা আতঙ্কের মধ্যে এই কাজ করলেই হতে পারে জেল

কী করে করোনার হাত থেকে রক্ষা করবেন আপনার বাড়ির বয়স্ক সদস্যদের, রইল তারই টিপস

শরীরে কীভাবে থাবা বসায় করোনা, জানালেন বিশেষজ্ঞরা