শনিবার রাতেই বর্ধমানে ভেঙে পড়েছিল স্টেশনের ভবনের পোর্টিকোর একাংশ। পরদিনই ফের দেখা দিল বিপত্তি। বর্ধমান-হাওড়া শাখায় রেল-লাইনে ধরা পড়ল ফাটল। ঘটতে পারত বড়সড় দুর্ঘটনা। স্থানীয় এক শ্রমিকের বুদ্ধিতে বেঁচে গেল অনেকগুলি প্রাণ।

রেলের তরফে জানানো হয়েছে রবিবার সকাল ৭.৫৬ মিনিট নাগাদ বর্ধমানের পাল্লারোড স্টেশনের অনতিদূরে রেল লাইনে ফাটল ধরা পড়ে। তবে রেলের কোনও কর্মী বা আধিকারিকের নয় এই ফাটল চোখে পড়ে স্থানীয় এক যুববকের। তাঁর জন্যই কোনও দুর্ঘটনা ঘটেনি।

সুরজ ঘোষ নামে ওই যুবক এদিন সকালে নিজের জমি দেখতে যাচ্ছিলেন। সে সময়ই তাঁর নজরে আসে রেললাইনে ফাটল রয়েছে। সেই সময়ই ওই লাইনে আসছিল বর্ধমান-হাওড়া ডাউন লোকাল ট্রেন। ওই যুবক লাইনের উপর দাঁড়িয়ে নিজের গায়ের জামা খুলে নাড়তে থাকেন। তাঁকে ওভাবে দেখে চালক বুঝতে পারেন, কিছু একটা বিপদ রয়েছে। তিনি তড়িঘড়ি ট্রেন থামিয়ে দেন। তাতেই দুর্ঘটনা এড়ায় ওই ট্রেন।

এরপর স্টেশনে বিষয়টি জানানো হয়।  তড়িঘড়ি কাজ শুরু হয়। আপাতত বন্ধ ডাউন লাইনে ট্রেন চলাচল। রেল কর্তারা জানিয়েছেন, দ্রুত ওই লাইন সাড়ানোর কাজ চলছে।