কিছুতেই বাগে আনা যাচ্ছে না জনতাকে। বাধ্য় হয়ে এবার লকডাউনে বাইরে বেরোলেই দেখা মাত্র গুলির নির্দেশ দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিলেন তেলেঙ্গানার মুখ্য়মন্ত্রী কে চন্দ্র শেখর রাও। তিনি জানান, করোনা মোকাবিলায় ঢিলেঢালা কথায় কাজ না হলে কঠোর হবে সরকার। প্রয়োজনে কারফিউ জারি করে সেনা নামানো হবে। ঘর থেকে কেউ বেরোলে বাধ্য় হয়ে গুলি চালোনোর নির্দেশ দিতে হবে তাঁকে।  

'যাপনের থেকে বেশি প্রয়োজন বেঁচে থাকা', মধ্যরাত থেকেই ২১ দিনের জন্য অচল পুরো দেশ.

সোমবার লকডাউন এড়িয়ে জনতাকে রাস্তায় দেখে ক্ষুব্ধ হয়েছেন মুখ্য়মন্ত্রী। তিনি বলেন, এরপর রাজ্য়বাসীর স্বার্থে আর ঝুঁকি নিতে পারবেন না তিনি। অত্যাবশ্য়কীয় পরিষেবা ছাড়া বাইরে কাউকে দেখলেই গুলি  চালানোর পথে হাঁটতে বাধ্য় হবে সরকার। 

থালা বাজাবেন আমার কবরের সামনে, মোদীকে ট্যুইট করলেন চিকিৎসক, উত্তর দিলেন রাহুল.

মঙ্গলবার রাতেই দেশজুড়ে লকডাউনের ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, আপাতত জুড়ে নয় দূরে থাকুন। দেশজুড়ে এই লকডাউন থাকবে ২১ দিন। গতকাল রাতে জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া ভাষণে এমনটাই জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তবে লকডাউন চলাকালীন দেশজুড়ে জরুরি পরিষেবা নির্দিষ্ট সময়ে চালু থাকবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, শরীরে এই সমস্যাগুলি থাকলে আগে থেকেই সাবধান হোন

এদিকে রাজ্য়ে নিত্যদিন বেড়েই চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বেগতিক দেখে আগেই হাসপাতালে আলাদা করে বেডের ব্য়বস্থা করেছে রাজ্য় সরকার।  রাজ্যে করোনা আক্রান্তের পরিসংখ্য়ান বলছে,এদিন আরও দুজনের শরীরে করোনার জীবাণু পাওয়া গিয়েছে। সব মিলিয়ে রাজ্য়ে এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ৯। যার মধ্য়ে দমদমের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে আক্রান্ত বা সন্দেহভাজনদের কোয়ারেন্টাইনে রাখার জন্য শহরের বিয়েবাড়ি, কমিউনিটি হল, স্টেডিয়ামগুলি নেওয়ার পরিকল্পনা করছে রাজ্য়।