বিনামূল্য়ে করোনা টিকা পাবেন সকল ভারতীয়। সোমবার বিকাল ৫টায় জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে বিরাট ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি জানিয়েছেন, টিকা নির্মাতাদের মোট উৎপাদনের ৭৫ শতাংশ ক্রয় করবে কেন্দ্র। তারপর বিনামূল্যে রাজ্য রাজ্যে সেই টিকা পৌঁছে দেওয়া হবে। অর্থাৎ, রাজ্যগুলিকেও টিকার পিছনে এক পয়সাও খরচ করতে হবে না।

এর আগে ২০ এপ্রিল শেষ বার জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে শোনা গিয়েছিল প্রধানমন্ত্রীকে। সেইসময়, দেশের করোনা পরিস্থিতি অত্যন্ত খারাপ ছিল। এখন করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গের প্রভাব কমতে শুরু করেছে। এই সময় আবার টিভির পর্দায় এলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি জানান, প্রথমে কেন্দ্রীয় সরকারই সকল টিকা সংগ্রহ করে রাজ্যে রাজ্যে পাঠাচ্ছিল। কিন্তু, অনেক রাজ্যই দাবি জানিয়েছিল, টিকাকরণ প্রক্রিয়ার বিকেন্দ্রীকরণের জন্য। সেই আবেদনে সাড়া দিয়েই করোনা টিকাকরণ নীতি বদলানো হয়েছিল। কেন্দ্রের নিয়ন্ত্রণ তুলে নিয়ে রাজ্যগুলিকে নিজেদের মতো করে টিকা সংগ্রহের স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছিল।

প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, এখন আবার বেশ কয়েকটি রাজ্য বলছে, টিকাকরণের আগের নীতিই ভালো ছিল। অর্থাৎ, কেন্দ্র  টিকা সংগ্রহ করে রাজ্যে রাজ্যে সরবরাহ করুক, এমনটাই চাইছিলেন বেশ কয়েকটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। তাই ফের কেন্দ্র টিকাকরণের নীতি বদলাচ্ছে। ২১ জুন থেকে আর রাজ্যের হাতে থাকবে না টিকাকরণের বিষটি। ফের সম্পূর্ণ দায়িত্ব  নিচ্ছে কেন্দ্র। টিকা নির্মাতাদের থেকে তাদের উৎপাদনের ৭৫ শতাংশ কিনবে কেন্দ্র। আর রাজ্য সরকারগুলির মাধ্যমে সেই টিকা, ১৮ বছরের ঊর্ধ্ব বয়সী সকলে বিনামূল্যে টিকা পাবে।

তবে এরপরও কেউ যদি পয়সা খরচা করে কোভিডের টিকা নিতে চান, সেই বিকল্পও খোলা রাখা হচ্ছে। ২৫ শতাংশ করোনা টিকা, নির্মাতাদের  কাছ থেকে সরাসরি কিনতে পারবে যে কোনও বেসরকারি সংস্থা। অর্থাৎ প্রাইভেট হাসপাতালগুলি চাইলে নির্মাতাদের কাছ থেকে সেই টিকা কিনে, অর্থের বিনিময়ে দিতে পারবে।