এবার এক কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে কেড়ে নিল করোনাভাইরাস। বুধবার নয়াদিল্লিতে দেহত্যাগ করলেন রেল মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী সুরেশ অঙ্গদি। বেশ কয়েকদিন ধরে কোভিড-এর সঙ্গে লড়াই করছিলেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার প্রথম সদস্য হিসাবে কোভিড আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল অঙ্গদির।

গত ১১ সেপ্টেম্বর সুরেশ অঙ্গদি-র কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফল ইতিবাচক  এসেছিল। প্রাথমিকভাবে তাঁর দেগে কোনও কোভিডের উপসর্গ ছিল না, অর্থাৎ অ্যাসিম্পটমেটিক ছিলেন জুনিয়র রেলমন্ত্রী। পরে তাঁকে দিল্লি এইমস হাসপাতালের ট্রমা সেন্টারে কোভিড-১৯ রোগীদের জন্য নির্দিষ্ট পরিষেবায় ভর্তি করা হয়েছিল। সেখানেই এদিন শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বিজেপি সাংসদ।

কর্ণাটকের বেলাগাভির কোপ্পা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন তিনি। রাজা লক্ষমগৌড়া আইন কলেজ থেকে আইন ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন। বেলগাভি আসন থেকেই ২০০৪, ২০০৯, ২০১৪ এবং ২০১৯ - পরপর চারবারের নির্বাচিত হয়ে লোকসভার সদস্য হয়েছিলেন সুরেশ অঙ্গদি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সহ রাজনৈতিক দলের সীমা ছাড়িয়ে বহু ভারতীয় রাজনীতিবিদ সুরেশ অঙ্গদি-র প্রয়াণে শোক প্রকাশ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী তাঁর মন্ত্রিসভার সদ্য প্রয়াত সদস্য সম্পর্কে জানিয়েছেন অঙ্গাদি একজন 'দক্ষ মন্ত্রী' এবং 'ব্যতিক্রমী কার্যকর্তা' ছিলেন। জুনিয়র রেলমন্ত্রীর পরিবার ও বন্ধুবান্ধবদের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর মৃত্যুসংবাদ পেয়ে শোক প্রকাশ করেছেন কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ-ও। তিনি জানিযেছেন সুরেশ অঙ্গদি সদা হাসিখুশি থাকতেন। তাঁর মৃত্য়ু সংবাদ তাঁকে ব্যথিত করেছে বলে জানিয়েছেন টুইটে।