মহামারীর থেকে অতিমারীতে উন্নীত হয়েছে করোনা। বিশ্ব জুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে ম্যারাথন গতিতে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার কোনও সম্ভাবনাই চোখে পড়ছে না অদূর ভবিষ্যতে। ইতিমধ্যে বিশ্বিজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছে গেছে ৫ লক্ষ ৩১ হাজারে। শুক্রবার সকালে মৃতের সংখ্যা ২৪ হাজার ছাড়িয়েছে। গোটা বিশ্বের প্রায় ১৯০টি দেশে ছড়িয়েছে করোনা সংক্রমণ। আর বিশ্বব্যাপী এই মহামারীর নতুন কেন্দ্র হিসাবে এবার উঠে এল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নাম।

মার্কিন মুলুকে এখনও পর্যন্ত ৮৫,৫০০ করোনা সংক্রমণের খবর পাওয়া গিয়েছে। এমন পরিসংখ্যানই দিচ্ছে জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়। আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে এবার চিন ও ইতালিকেও ছাড়িয়ে গিয়েছে আমেরিকা। করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ঘটা চিনে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৮১ হাজার ৭০০। আর মৃতের সংখ্যায় এক নম্বরে থাকা ইতালিতে এখনও পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৮০, ৫০০। 

লকডাউন উপেক্ষা করে বেরিয়েছিলেন যুবক, চলে গেলেন একেবারে কুমিরের পেটে

করোনা যুদ্ধে সামিল ভারতীয় রেল, ট্রেনের বগিতেই বানান হচ্ছে কোয়ারেন্টাইন

আর প্রাণের ঝুঁকি নিতে হবে না চিকিৎসকদের, করোনা রোগীদের এবার চিকিৎসা করবে রোবট

বিশ্বে এখনও পর্যন্ত কোভিড ১৯ কে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লক্ষ ২২ হাজার মানুষ। ইউরোপের ইতালিতে করোনায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। দেশটিতে প্রাণ হারিয়েছেন ৮,২০০ বেশি মানুষ। অন্যদিকে ট্রাম্পের দেশ আমেরিকার করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ১,২৮৮ জনের। এই অবস্থায় আমেরিকার ৪০ শতাংশ মানুষকে লকডাউন করে রাখা হয়েছে। প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে যাতে কেউ না বের হন তার পরামর্শ দিচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।