ভারতের বিরুদ্ধে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিল শ্রীলঙ্কা। ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন আপের কথা চিন্তা করেই সম্ভবত আগে ব্যাট করে নিতে চাইলেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দিমুথ করুণারত্নে। কারণ ভারত একবার বড় রান তুলে ফেললে তা তাড়া করা মুশকিল শ্রীলঙ্কার পক্ষে। তার উপর দ্বিতীয় ইনিংসে বৃষ্টি হলে আগে ব্যাট করলে ডাকওয়ার্থ লুইসের সুবিধে পাওয়ার সুযোগ থাকছে।

শেষ চারের টিকিট আগেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে। তবু শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে এই ম্যাচের গুরুত্ব বিরাট কোহলিদের কাছে অপরিসীম। কারণ ভারত যদি এই ম্যাচে জেতে এবং অস্ট্রেলিয়া যদি দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে পরাজিত হয়, সেক্ষেত্রে গ্রুপ শীর্ষে থাকবেন বিরাট কোহলিরা। আর তাহলে সেমি ফাইনালে শক্তিশালী ইংল্যান্ডের বদলে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে ভারত। 

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দল দু'টি পরিবর্তন করেছে ভারত। মহম্মদ শামি এবং যুজবেন্দ্র চহালকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। তাঁদের বদলে প্রথমবার বিশ্বকাপে সুযোগ পেলেন রবীন্দ্র জাদেজা। পাশাপাশি দলে ফিরেছেন স্পিনার কুলদীপ যাদবও। 

হেডিংলির পিচে বড় রান উঠবে বলেই আশাবাদী ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। পিচে সেরকম ঘাস নেই। তার উপর এই পিচেই আফগানিস্তান- ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচে দুই ইনিংস মিলিয়ে ৬০০-র বেশি রান উঠেছিল। শনিবার সকাল থেকে হেডিংলিতে প্রথমে আকাশ মেঘলা থাকলেও পরে আকাশ পরিষ্কার হয়েছে, রোদও উঠেছে। তবে ম্যাচের পরের দিকে বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছেই। 

শেষ বার বিশ্বকাপে ২০১১ সালে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত এবং শ্রীলঙ্কা। আর সেটা ছিল বিশ্বকাপ ফাইনাল। শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। তার পরে বিশ্ব ক্রিকেটে ভারত যত শক্তি বাড়িয়েছে, ততটাই দুর্বল হয়েছে শ্রীলঙ্কা। শ্রীলঙ্কার তারকা পেসার লসিথ মালিঙ্গার জন্যও এটাই বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচ। ফলে শ্রীলঙ্কাও চাইবে ইংল্যান্ডের পরে ভারতকে হারিয়ে ফের চমক দিতে।