টি টোয়েন্টি সিরিজে ভারতের কাছে হোয়াইওয়াশ হতে হলেও একদিনের সিরিজের প্রথম ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়াল নিউজিল্যান্ড। প্রথমে ব্যাট করে ৩৪৭ তুলেও কিউইদের কাছে পরাজয় স্বীকার করতে হলো টিম ইন্ডিয়া- কে। রস টেলর- এর ৮৪ বলে অপরাজিত ১০৯ রান এবং টম ল্যাথাম-এর ৪৮ বলে ৬৮ রানের ইনিংস-এর সৌজন্যে ভারতকে চার উইকেটে হারিয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ এগিয়ে গেল নিউজিল্যান্ড। ম্যাচের সেরাও হন রস টেলরই। 

রোহিত শর্মা এবং শিখর ধাওয়ান চোটের জন্য বাইরে। তাঁদের বদলে এ দিন ভারতের হয়ে ইনিংস শুরু করেছিলেন পৃথ্বী শ  ও ময়াঙ্ক আগরওয়াল। টসে জিতে এ দিন ভারতকে ব্যাট করতে পাঠায় নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক হেনরি নিকোলাস। যদিও একদিনের ক্রিকেটে অভিষেকটা খুব স্মরণীয় হয়নি পৃথ্বী এবং মায়াঙ্কের। ২১ বলে ২০ রান করে ফেরেন পৃথ্বী। মায়াঙ্ক করেন ৩১ বলে ৩২ রান। ওপেনিং জুটিতে বড় রান না উঠলেও এ দিন ভারতকে বড় রানে পৌঁছে দেয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি, শ্রেয়স আইয়ার এবং কে এল রাহুলের ব্যাটিং। 

প্রথমে অধিনায়ক কোহলি (৫১)-র সঙ্গে একশো রানের জুটি গড়েন শ্রেয়স। এর পর পাঁচ নম্বরে নামা রাহুলের সঙ্গে তাঁর জুটিতে ওঠে ১৩৬ রান। ওপেনিংয়ের বদলে এ দিন দলের প্রয়োজনে পাঁচ নম্বরে নেমেও সফল রাহুল। ৬৪ বলে ৮৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে ভারতের রানকে সাড়ে তিনশোর কাছাকাছি পৌঁছে দেন তিনি। তাঁর সামনে এ দিনও অসহায় লেগেছে কিউই বোলিংকে। ১০৭ বলে ১০৩ রান করেন শ্রেয়স। শেষ দিকে রাহুলের সঙ্গে ঝোড়ো ব্যাটিং করেন কেদার যাদবও। ১৫ বলে ২৬ রান করে নট আউট থাকেন তিনি। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ৩৪৭ তোলে ভারত। 

রান তাড়়া করতে নেমে শুরুটা ভালই করেন নিউজিল্যান্ড ওপেনার মার্টিন গাপ্টিল এবং অধিনায়ক হেনরি নিকোলাস-এর জুটি। ৮২ বলে ৭৮ রান করেন নিকোলাস।  কিন্তু ভারতের থেকে ম্যাচ নিয়ে চলে যায় রস টেলর- টম ল্যাথাম জুটি। ৮৪ বলে ১০৯ রান করে অপরাজিত থাকেন রস টেলর। টি টোয়েন্টি সিরিজে দু' বার দলকে জয়ের কাছে নিয়ে গিয়েও জেতাতে পারেননি।  এ দিন যেন দলকে ম্যাচ জিতিয়েই মাঠ ছাড়়ার প্রতিজ্ঞা করে এসেছিলেন অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান। 

 ব্যাটসম্যান-রা বড় রান তুললেও এ দিন দাগ কাটতে ব্যর্থ হন শামি, বুমরাহ, কুলদীপরা। টি টোয়েন্টি সিরিজে চহালের উপরে ভরসা রাখলেও এ দিন কুলদীপের উপর ভরসা রেখেছিল টিম ম্যানেজমেন্ট। কিন্তু নিজের দশ ওভারে ৮৪ রান দেন তিনি। তার উপর এ দিন কোহলি- শাস্ত্রীদের চিন্তা বাড়িয়ে অতিরিক্ত ২৯ রান দেন ভারতীয় বোলাররা। তার মধ্যে ছিল চব্বিশটি ওয়াইড।