দুর্দান্ত শুরু করেও ছন্দ ধরে রাখতে পারল না ভারত মহিলা দল। শুক্রবার সিডনিতে আইসিসি মহিলা টি২০ বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওপেনার স্মৃতি মান্ধানা (১১ বলে ১০) ও শাফালি ভার্মা (১৫ বলে ২৯) ঝড়ের গতিতে ইনিংস শুরু করলেও এরপর অস্ট্রেলিয় বোলাররা দ্রুত ম্য়াচে ফিরে আসে। অল্প সময়ের ব্যবধানে পরপর তিন উইকেট হারিয়ে বেশ বেকায়দায় পড়েছিল হরমনপ্রিত বাহিনী। কিন্তু, দীপ্তি শর্মা (৪৬ বলে ৪৯) এবং জেমাইমা রডরিগেস (৩৩ বলে ২৬) অর্ধশতরানের জুটি গড়ে ভারতকে বিপদমুক্ত করে। তাদের দৌলতেই ভারত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৩২ রান তুলল।

এদিন শুরুটা দুর্দান্ত করেছিলেন দুই ভারতীয় ওপেনার। বিশেষ করে শেফালি ভার্মা তো একেবারে সংহারক মূর্তি ধারণ করেছিলেন। মোট ৫টি চারের পাশাপাশি তিনি একটি ছয়-ও মারেন। তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দিচ্ছিলেন স্মৃতি মান্ধানা। তাদের জুটিতে ৪ ওভারে ৪০ রান উঠে গিয়েছিল।

আরও পড়ুন - ভারতের প্রতিশ্রুতিমান এই টেস্ট ক্রিকেটার এখন বিখ্যাত গায়ক, চিনতে পেরে টুইট মনোজের

আরও পড়ুন - নিউজিল্যান্ডের হয়ে মার্টিন ক্রো-রও এমন নজির নেই যা আছে টেলরের, জানুন

আরও পড়ুন - ৩০ বছরে এই প্রথম কোনও ভারতীয় ওপেনার প্রথম সেশন টিকে গেলেন, নজির গড়লেন মায়াঙ্ক

এরপরই অস্ট্রেলিয়া-কে ম্যাচে ফেরান জেস জোনাসেন। পঞ্চম ওভারের প্রথম বলেই উইকেটের সামনে মান্ধানার পা পেয়ে যান তিনি। তাঁর সঙ্গী শেফালি-কেও পাওয়ারপ্লের মধ্যেই প্যাভিলিয়নে ফেরান এলিস পেরি। ভারতীয় অধিনায়িকা হরমনপ্রীত কৌর (৫ বলে ২)-ও জেস জোনাসেন-এর বলে অদ্ভূত ভঙ্গীতে স্টাম্প আউট হন। একের পর এক উইকেটের পতনে গভীর উদ্বেগে পড়েছিল হয়ে ভারত।

তবে, রুখে দাঁড়ান, দীপ্তি এবং রডরিগেস। খুব একটা চার-ছয় মারার ঝুঁকিতে না গিয়ে, দেখেশুনে তাঁরা ভারতের রান মোটামুটি সম্মানজনক জায়গায় পৌঁছে দেন। ১৬তম ওভারে ৩৩ বলে ২৬ রান করে আউট হন জেমাইমা। দলের প্রয়োজনে নিজের মারকুটে স্বভাবের একেবারে বিপরীতধর্মী একটি িনিংস খেলেন তিনি। এদিন একটিও বাউন্ডারি মারেননি তিনি।