করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমেছে গোটা দেশ। ইতিমধ্যেই দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭৫০ ছাড়িয়েছে। বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। পশ্চিমবঙ্গকেও করোনা ভাইরাস আতঙ্ক গ্রাস করেছে। রাজ্যে এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১০। মৃত্যু হয়েছে এখনও পর্যন্ত ১ জনের, এক জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। রাস্তায় নেমে পরিস্থিতির মোকাবিলা করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হাসপাতাল হাসপাতাল ভিসিট করছেন তিনি। স্বাস্থ্য পরিষেবায় নিয়েছেন একাধিক পদক্ষেপ। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় পিছিয়ে নেই মুখ্যমন্ত্রীর মন্ত্রীসভা। নিজের বেতন ও পেনশন করোনা যুদ্ধে দান করলেন রাজ্যের ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লা।

আরও পড়ুনঃকরোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াইয়ে সামিল হলেন মাস্টার ব্লাস্টার, দিলেন ৫০ লক্ষ টাকা

 রাজ্যে যে ভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, তাতে উদ্বিগ্ন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লা। প্রাক্তন জাতীয় ক্রিকেটার জানিয়েছেন, তিন মাসের বেতন ও বোর্ড থেকে পাওয়া তিন মাসের পেনশন করোনা যুদ্ধে দান  করেছেন তিনি। সংবাদ মাধ্যমে লক্ষ্মী জানিয়েছেন, “নিজেদের সাধ্যমতো এখন সবারই এগিয়ে আসা প্রয়োজন। আমি এর মধ্যেই বিধায়ক খাতের তিন মাসের বেতন দিয়েছি মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে। তা ছাড়া ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের তিন মাসের পেনশনও দান করেছি।”

আরও পড়ুনঃলকডাউনে সকলকে বাড়িতে থেকে সরকারকে সাহায্য করার অনুরোধ সামির

আরও পড়ুনঃকরোনা মোকাবিলায় একের পর এক ভিডিও শেয়ার শিখর ধাওয়ানের

১৯৯৯ সালে ভারতের হয়ে তিনটি ওয়ানডে খেলেছিলেন লক্ষ্মী। কিন্তু গোড়ালির চোটের জন্য তাঁর আন্তর্জাতিক কেরিয়ার ওখানেই থমকে গিয়েছিল। ঘরোয়া ক্রিকেটে অবশ্য বাংলার হয়ে তিনি দাপটে খেলেছেন দীর্ঘ দিন। একশোর বেশি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন তিনি। কলকাতা নাইট রাইডার্সের আইপিএল জয়ী দলেরও সদস্য ছিলেন তিনি। করোনা মোকাবিলায় দানের পর সোশাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন লক্ষ্মীরতন শুক্লা। যেখানে তিনি শুধু আর্থিক সাহায্যের কথা নয়, সকলকে সচেতনও করেছেন লক্ষ্মী। সকলকে ঘরে থাকার পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি সকলকে পরিষ্কার পরিচ্ছন থাকার কথা বলেছেন বাংলাার ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী। সকলে একসঙ্গে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করলে জয় আসবেই বলে জানিয়েছেন লক্ষ্মীরতন শুক্তাল।