২০১৯ সালটা মাঠে ভাল কেটেছে তাঁর। কিন্তু একটি বিষয়ে অত্যন্ত হতাশ এবং বিরক্ত রোহিত শর্মা। সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সেই বিরক্তি এবং হতাশার কারণও জানিয়েছেন রোহিত। ভক্তদের কাছে তিনি অনুরোধ করেছেন, খারাপ পারফরম্যান্স-এর জন্য তাঁকে যা খুশি বলতেই পারেন সমর্থকরা। কিন্তু তাঁর পরিবারকে যেন এসবের মধ্যে টেনে না আনা হয়। 

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি টোয়েন্টি সিরিজে না খেলে বিশ্রাম নিয়েছেন হিটম্যান। কিন্তু হঠাৎ কেন পরিবার নিয়ে এমন মন্তব্য করলেন রোহিত? এর জবাব দিতে গিয়ে গত বছরের বিশ্বকাপের সময়ের একটি ঘটনা মনে করিয়েছেন রোহিত। বিশ্বকাপের সময় নির্দিষ্ট দিন পেরিয়ে যাওয়ার পরেও ভারতীয় ক্রিকেটাররা নিজেদের পরিবারকে সঙ্গে রেখে দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ ওঠে। সেমিফাইনালে হেরে বিশ্বকাপ থেকে ভারতীয় দলের বিদায়ের পরে এই বিতর্ক আরও জোরাল হয়। ক্রিকেটারদের পরিবারকে উদ্দেশ করে তির্যক নানা মন্তব্য করা হয়। আর এতেই ব্যথিত রোহিত শর্মা। 

তিনি বলেছেন, 'আমাদের পরিবারের সদস্যরা আমাদের সমর্থন জোগায়, আনন্দে থাকতে সাহায্য করে। আমাদের পরিবার নিয়ে যখন কটূ মন্তব্য করা হচ্ছিল তখন আমার কয়েজন বন্ধু এসে বিষয়টি আমায় জানায়। আমি হেসেই সবকিছু উড়িয়ে দিয়েছিলাম।'

যদিও বেশিদিন আর বিষয়টি হালকাভাবে নিতে পারেননি রোহিত। সেকথা স্বীকার করে নিয়ে তিনি বলেছেন, 'কিন্তু এর পরে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলতেই থাকে। আমার পরিবারকেও জড়ানো হয়। যেটা একেবারেই অনুচিত। আপনারা আমায় নিয়ে যা খুশি বলতেই পারেন, কিন্তু আমার পরিবারকে কেন এসবের মধ্যে টেনে আনবেন? তাঁরা তো অন্য কোনও কিছু নিয়ে মাথা ঘামান না। আমার তো মনে হয় বিরাটও একইরকম মত পোষণ করবে। কারণ আমাদের পরিবারের সদস্যরা আমাদের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ অংশ।'

ওপেনার হিসেবে ২০১৯ সালে সব ফরম্যাটেই সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন রোহিত। সনৎ জয়সূর্যের রেকর্ডও ভেঙে দিয়েছেন তিনি। শুধু বিশ্বকাপেই মোট পাঁচটি সেঞ্চুরি করেন রোহিত। একটি টুর্নামেন্টে এতগুলি শতরানের রেকর্ড আর কারও নেই। তবে নতুন বছরের শুরুতেই রোহিতের সামনে নতুন চ্যালেঞ্জ। এবার নিউজিল্যান্ডে টেস্ট ওপেনার হিসেবে কঠিন পরীক্ষার মুখে পড়তে হবে তাঁকে। টেস্ট  দলেও নিজের জায়গা পাকা করাটাই এখন রোহিতের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ।