এই সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে এ রাজ্যে শাসক দলকে বড়সড় ধাক্কা দিতে চলেছে গেরুয়া শিবির। অন্যদিকে বামেদের খাতা খোলার সম্ভাবনা কম।

কোচবিহার- বিজেপি
আলিপুরদুয়ার-বিজেপি
জালপাইগুড়ি-তৃণমূল
দার্জিলিং- বিজেপি
রায়গঞ্জ- তৃণমূল
বালুরঘাট-বিজেপি
মালদহ উত্তর- বিজেপি
মালদহ দক্ষিণ- কংগ্রেস
জঙ্গিপুর-তৃণমূল
বহরমপুর-কংগ্রেস
মুর্শিদাবাদ-বিজেপি
কৃষ্ণনগর- তৃণমূল
রানাঘাট- বিজেপি
বনগাঁ- তৃণমূল
ব্যারাকপুর- তৃণমূল
হাওড়া- তৃণমূল
উলুবেড়িয়া- তৃণমূল
শ্রীরামপুর- তৃণমূল
হুগলি- বিজেপি
আরামবাগ-বিজেপি
তমলুক- তৃণমূল
কাঁথি- তৃণমূল
ঘাটাল- তৃণমূল
ঝাড়গ্রাম-  বিজেপি
মেদিনীপুর- বিজেপি
পুরুলিয়া- বিজেপি
বাঁকুড়া- বিজেপি
বিষ্ণুপুর- বিজেপি
বর্ধমান পূর্ব- বিজেপি
বর্ধামান দুর্গাপুর- তৃণমূল
আসানসোল- তৃণমূল
দমদম- তৃণমূল
বারাসত- তৃণমূল
বসিরহাট- তৃণমূল
জয়নগর- তৃণমূল
মথুরাপুর- তৃণমূল
ডায়মন্ড হারবার- তৃণমূল
যাদবপুর- তৃণমূল
কলকাতা দক্ষিণ- তৃণমূল
কলকাতা উত্তর- তৃণমূল
এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বোলপুর এবং বীরভূম কেন্দ্রের সম্ভাব্য ফল দেখানো হয়নি।

এই এক্সিট পোল অনুযায়ী বাংলায় বিয়াল্লিশটি আসনের মধ্যে চব্বিশটি যেতে পারে তৃণমূলের দখলে, ষোলটি যেতে পারে বিজেপি-র দখলে. কংগ্রেস পেতে পারে দু'টি আসন। এবিপি আনন্দ ছাড়াও অন্যান্য সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলির সমীক্ষাতেও এরাজ্য থেকে বিজেপি-কে দশটির বেশি আসন দেওয়া হয়েছে.