পরিচালকঃ অশ্বিনী আইয়ার তিওয়ারি

অভিনেতা-অভিনেত্রীঃ কঙ্গনা রানওয়াত, জসি গিল, রিচা চাড্ডা, নীনা গুপ্তা

গল্পঃ প্রাক্তন কবাডি ফেলোয়াড়ের গল্পই এখানে তুলে ধরা হবে। যেখানে ফুঁটে উঠেছে একজন খেলোয়াড়ের ঘুরে দাঁড়ানোর গল্প। একজন মেয়ের পরিবার, সন্তান সব দিক সামলে কীভাবে দ্বিতীয়বার নতুন করে পথ চলা শুরু করা যায় সেই গল্পই বলবে পঙ্গা ছবি। যখন সকলের চোখে কেরিয়ার শেষ তখনই নতুন করে নিজেকে আবিষ্কার করার গল্প পঙ্গা। 

অভিনয়ঃ ছবিতে অনবদ্য অভিনয় করেছেন কঙ্গনা রানওয়াত। ছবির আদ্যপান্ত জুড়ে থাকা একজন অ্যাথলেটিকের গল্পই এবার অবলীলায় বলে চললেন কঙ্গনা রানওয়া। ছবির মূলেই রয়েছে চরিত্রের উপস্থাপনা। ছবি একাই নেটে নিয়ে গেলেন কঙ্গনা রানওয়াত। ছবিতে বাকিদের অভিনয় কঙ্গনার সামনে ফিকে।

চিত্রনাট্যঃ চিত্রনাট্য অনবদ্য ছবির আদ্যপান্ত জুড়ে কেবলই কবাডি নয়, পাশাপাশি খেলোয়াড়ের পারিবারিক জীবন, তার প্রতিবন্ধকতাও খুব সুন্দরভাবে ছবিতে উপস্থাপনা করা হয়েছে। ছবির সংলাপ ভিষণরকমের প্রাসঙ্গিক। গল্পকে দুই অধ্যায়ে খুব যত্নের সঙ্গে সাজিয়ে তোলা হল। 

সিনেম্যাটোগ্রাফিঃ ছবির সেট বেশ মানানসই। গল্পের সঙ্গে সামঞ্জস্যতা বজায় রেখেই ফুঁটিয়ে তোলা হল এই ছবিকে। কঙ্গনা রানওয়াতের পোশাক থেকে শুরু লুক, চিত্রগ্রহণ সবেতেই যেন দশে দশ পঙ্গা। এক কথায় বলা চলে এই ছবিকে পর্দায় তুলে ধরতে সিনেম্যাটোগ্রাফির ভূমিকা ছিল সব থেকে বেশি। 

পরিচালনাঃ ছব পরিচালনার দিক থেকেও কোনও খামতি রাখলেন না পরিচালক। ছবির আদ্যপান্তা জুড়ে থাকা, একটা ছাপসা, মধ্যবিত্ত পরিবারের গল্পই তুলে ধরা হল। এক কথায় পঙ্গা দর্শকদের অনুপ্রাণিত করবে। মেয়েদের কেরিয়ারের শেষ ও শুরুর যে কোনও নির্দিষ্ট সময় থাকতে পারে না সেই কথাই যেন স্মরণ করিয়ে দিল এই ছবি।