বিশ্ব জুড়ে নিজের মারণ থাবা ক্রমশ বিস্তার করছে করোনা ভাইরাস। ইতিমধ্যেই গোটা পৃথিবীতে আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ১৩ লক্ষ ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৭৬ হাজার। ভারতেও আক্রান্ত ৫ হাজারের বেশি মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ১৫০ জনেরও বেশি। গৃহবন্দি থাকাই ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচার একমাত্র পথ। তাই এবার সাধারণ নানুষের সচেতনতা বৃদ্ধিতে রাষ্ট্র সংঘ ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যৌথ উদ্যোগে ‘বি অ্যাক্টিভ’ বা ‘সক্রিয় থাকুন’ নামক একটি সচেতনতা প্রচার শুরু করেছে। এই দুই সংস্থার সঙ্গে সচেতনতা প্রচারে সামিল হয়েছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা ফিফা। সারা বিশ্বের প্রথম সারির সমস্ত ফুটবল ক্লাবও এই অভিযানে সামিল হয়েছে। এবার বি অ্যাক্টিভ সচেতনতা প্রচারে সামিল হচ্ছে ভারত তথা কলকাতার দুই প্রাচীন ক্লাব ইষ্টবেঙ্গল ও মোহনবাগান।

আরও পড়ুনঃমেসির ব্যক্তিগত জীবনের কিছু মূহুর্ত, যা বরাবর ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

এই প্রচারে ইতিমধ্যেই সামিল হয়েছে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড, বার্সোলোনা, রিয়াল মাদ্রিদের মত ক্লাব। এবার কলকাতার দুই প্রধান ক্লাবও ভারতের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করবে এই সচেতনতা প্রচারে। এই অভিযানের মূল উদ্দেশ্য করোনা ভাইরাস সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করা ও সুস্থ থাকতে মানুষকে ঘরে থাকতে বলা। এছাড়াও এই কর্মসূচিতে সামিল হবে ক্লাব আমেরিকা, বেজিং গুয়ান এফসি, সাংহাই শেনহুয়া এফসি, মেলবোর্ন সিটি এফসি, সিডনি এফসি, অকল্যান্ড সিটি এফসি, রিভার প্লেট, অলিম্পিক দি মার্সেই, ফ্ল্যামেঙ্গো, পালমেইরাসের মতো ক্লাবগুলি। ইতিমধ্যেই লকডাউন পিরিয়ডে সুস্থ থাকতে প্রাপ্তবয়স্কদের ৩০ মিনিট ও শিশুদের অন্ততপক্ষে ১ ঘন্টা রোজ শারীরীক কসরত করার পরামর্শ দিয়েছে বিস্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেজ বলেছেন, ‘করোনাকে হারাতে ফিফা বিশ্বের গোটা ফুটবল সম্প্রদায়কে সচেতনতা প্রচারে সামিল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। এই সচেতনতা আমাদের জন্য দারুণ একটা শিক্ষা। শুধু আজকের জন্য নয়, প্রতিদিনের জন্য।

আরও পড়ুনঃসুন্দরী রমণীর বেশে প্রাক্তন পাকিস্তান ক্রিকেটার সাকলিন মুস্তাক, ভিডিও ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

আরও পড়ুনঃআইপিএলের জন্য ভারতীয় ক্রিকেটারদের স্লেজিং করতে ভয় পান অজি ক্রিকেটাররা, বিস্ফোরক দাবি ক্লার্কের

করোনা যুদ্ধে এর আগেই সামিল হয়েছে ইষ্টবেঙ্গল মোহনবাগান ক্লাব। ২০ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছে ২০১৯-২০ মরসুমের আইলিগ চ্যাম্পিয়নরা। অপরদিকে ৩০ লক্ষ টাকা দেওয়ার ঘোষণা করা হয়েছে ইষ্টবেঙ্গল ক্লাবের পক্ষ থেকে। এছড়া ময়দানের সকল ক্লাবের মালি ও কর্মচারীদের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রিও বিলি করা হয়েছে ইষ্টবেঙ্গলের পক্ষ থেকে। প্রয়োজনে আরও বেশি মাত্রায় সাহায্যের হাত বাড়ানোর আশ্বাস দিয়েছে ময়দানের দুই বড় ক্লাব। এবার রাষ্ট্র সংঘ ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যৌথ উদ্যোগে ‘বি অ্যাক্টিভ’ সচেতনতা প্রচার অভিযানে অংশ নিয়ে যতটা সম্ভব মানুষকে সচেতন করা যায় সেই লক্ষ্যেই ঝাঁপাতে চলেছে ইষ্টবেঙ্গল ও মোহনবাগান ক্লাব।