মারণ ভাইরাস করোনার কারণে আগেই এক বছর পিছিয়ে গিয়েছে ইউরো কাপ, কোপা আমেরিকা, অলিম্পিক্সের মত মেজর স্পোর্টস ইভেন্ট। স্থগিত রয়েছে ইপিএল, লা লিগা, সিরি এ, চ্যাম্পিয়নস লিগের মত প্রতিযোগিতাগুলি। কবে থেকে আবার শুরু হবে, এবছর আদৌ টুর্নামেন্টগুলি হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও বন্ধ সমস্ত খেলা। এবার করোনা থাবা আরও একটি বিশ্বমানের ফুটবল টুর্নামেন্টের উপর। মারণ কোভিড ১৯ ভাইরাসের জেরে পিছিয়ে গেল ভারতে হতে চলা অনুর্ধ্ব-১৭ মহিলাদের বিশ্বকাপ ফুটবল। যা হওয়ার কথা ছিল নভেম্বরে। ফিফার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে বিশ্বজুড়ে চলতে থাকা উদ্বেগজনক পরিস্থিতির জেরে এই প্রতিযোগিতা স্থগিত করার কথা।

আরও পড়ুনঃ'এখানেই মা সচিন-রাহুলদের বসিয়ে খাওয়াতেন', রইল সৌরভের বাড়ির অন্দরমহলের ইতিকথা

আগামী ২ থেকে ২১ নভেম্বর ভারতের মাটিতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল মহিলাদের বয়সভিত্তিক এই বিশ্বকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট। কিন্তু বিশ্ব মহামারী করোনার যা প্রভাব, তার ফলাফল আগাম পর্যালোচনা করে মেজর এই স্পোর্টস ইভেন্ট নভেম্বরে স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিল ফিফা কনফেডারেশন। কেবল অনুর্ধ্ব-১৭ নয়, অগাস্ট-সেপ্টেম্বরে পানামা এবং কোস্টারিকায় মেয়েদের অনুর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপও স্থগিত রেখেছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা।এক বিবৃতিতে ফুটবল অনুরাগীদের এই খবর সম্পর্কে জ্ঞাত করেছে ফিফা। তবে দু’টি টুর্নামেন্টের নতুন কোনও দিনক্ষণ এখনও ঘোষণা করেনি তারা। হাতে পাঁচ মাস সময় থাকলেও এত শীঘ্রই কেন টুর্নামেন্টের উপর স্থগিতাদেশ জারি হল। উত্তরে ফিফা জানিয়েছে, টুর্নামেন্ট শুরু হতে পাঁচ মাস বাকি থাকলেও যোগ্যতা নির্ণায়ক পর্বের বেশ কিছু খেলা এখনও বাকি রয়েছে। যা করোনার জেরে আপাতত বন্ধ। সেগুলি কবে অনুষ্ঠিত হবে সেব্যাপারে নিশ্চিত নই আমরা। তাই সমস্তকিছু পর্যালোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত।

আরও পড়ুনঃঅস্থায়ী করোনা পরীক্ষা কেন্দ্রের রূপ দেওয়া হচ্ছে এজবাস্টন ক্রিকেট গ্রাউন্ডকে

আরও পড়ুনঃভারত সফর থেকে ফেরত দক্ষিণ আফ্রিকার সব ক্রিকেটারদের করোনা টেস্ট নেগেটিভ

মহিলাদের দুটি বিশ্বকাপ একইসঙ্গে স্থগিত রাখার ফলে আরও ক্ষতির সম্মুখীন হল আন্তর্জাতিক ফুটবল। বিশষ করে অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপের আয়োজক দেশে ভারত হওয়ায় আশায় বুক বাঁধছিল ভারতীয় দল থেকে ফুটবল প্রেমিরা। ভারতের মহিলা ফুটবলও এই বিশ্বমানের প্রতিযোগিতা হলে অনেকটা উন্নত হত। ব্যবসাও বাড়ত অনেকাংশে। কিন্তু বর্তমানে সবই করোনার গ্রাসে। এখন শুধু অপেক্ষাই সম্বল।