জমে উঠেছে ইউরোপীয়ান গোল্ডেন শু জয়ের লড়াই। ইউরোপের লিগগুলির মধ্যে সর্বোচ্চ গোলদাতাকে দেওয়া হয় এই পুরস্কার। এর আগে সবচেয়ে বেশিবার এই পুরস্কার জিতেছেন বার্সেলোনার মহাতারকা লিওনেল মেসি। ৬ বার গোল্ডেন শুয়ের সম্মান অর্জন করেছেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা। তারপর রয়েছেন পর্তুগিজ মহানায়ক ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। তিনি এই পুরস্কারটি জিতেছেন ৪ বার। ফুটবলের ইতিহাসে রোনাল্ডোই এমন একমাত্র ফুটবলার যিনি দুটি ভিন্ন লিগের দলের হয়ে খেলে দুই-দলের হয়েই গোল্ডেন শু জিতেছেন। যদিও শেষ দুবার এই পুরস্কার জিতেছেন মেসি।

আশ্চর্যজনকভাবে এইবার দুই মহাতারকাকে পেছনে ফেলে গোল্ডেন শু জয়ের লড়াইয়ে এগিয়ে রয়েছেন এক অখ্যাত ফুটবলার। মরশুমের এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে ২৪টি লিগের ম্যাচে ২৬ টি গোল করে গোল্ডেন শু-এর লড়াইয়ে অনেক এগিয়ে লাজিওর ফুটবলার কিরো ইমোবাইল। লাজিওর হয়ে নিয়মিত গোল করে চলেছেন তিনি। তার সবচেয়ে কাছে রয়েছেন বুন্দেশলিগায় বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে খেলা ফরোয়ার্ড রবার্ট লিয়নডস্কি। গতবারের গোল্ডেন শু বিজয়ী ফুটবলার লিও মেসি এইমুহুর্তে রয়েছেন প্রথম পাঁচের বাইরে। লিগে বার্সেলোনার হয়ে ১৭ টি ম্যাচ খেলে ১৪ টি গোল করেছেন তিনি। ২০ গোল করে গোল্ডেন শু-এর দৌড়ে যুগ্মভাবে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। 

এই মুহুর্তে যা পরিস্থিতি তাতে দাঁড়িয়ে বেশিরভাগ ফুটবল বিশেষজ্ঞর মতে গোল্ডেন শু-এর লড়াই এখন মূলত সীমাবদ্ধ থাকবে রবার্ট লিয়নডস্কি এবং কিরো ইমোবাইলের মধ্যে। টিমো ওয়ার্নার কিংবা ব্রুট হল্যান্ডের মতো নবীন ফুটবলাররাও দৌড়ে রয়েছেন। তবে অনভিজ্ঞ এই নবীনরা শেষ পর্যন্ত এই চাপ নিয়ে পারফরম্যান্স বজায় রাখতে পারবেন কিনা সেই নিয়ে এই মুহুর্তে সন্ধিহান অনেক বিশেষজ্ঞরা। রোনাল্ডো এই মুহুর্তে কাছাকাছি থাকলেও বয়সজনিত কারণে তাকে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচগুলিতেই ব্যবহার করবে জুভেন্টাস। আর দৌড়ে আপাতত অনেক পিছিয়ে রয়েছেন মেসি। ফলে মেসি-রোনাল্ডো আধিপত্য শেষ করে গোল্ডেন শু-এর খেতাবটি উঠবে নতুন কারোর হাতেই, এমনটাই মনে করছেন বেশিরভাগ ফুটবল বিশেষজ্ঞরা।