করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ২১ দিনের লকডাউন গোটা দেশে, দেখে নিন এর মধ্যেও মিলবে যেসব পরিষেবা

First Published 25, Mar 2020, 5:47 PM IST

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের ফলে আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত গৃহবন্দি হয়েই থাকতে হবে দেশবাসীকে। যদিও জরুরী পরিষেবা মিলবে বলে আশ্বাস দিচ্ছে প্রশাসন। তবে কী কী খোলা  থাকছে এই সময় তা নিয়ে শুরু হয়েছে জোড় জল্পনা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের প্রকাশ করা তালিকা অনুযায়ী এই সময় মিলবে  যে পরিষেবাগুলি তার একটা তালিকা তুলে ধরা হল আপনাদের সামনে।
 

রেশন দোকান, মুদিখানা খোলা থাকবে। শাক সবজি, মাছ-মাংসের দোকানও খোলা থাকবে। সেই সঙ্গে অব্যহত থাকবে দুধের সরবরাহ। জেলা প্রশাসনকে ব্যবস্থা করতে হবে যাতে খাবার বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়, বাজারে না আসতে হয়।

রেশন দোকান, মুদিখানা খোলা থাকবে। শাক সবজি, মাছ-মাংসের দোকানও খোলা থাকবে। সেই সঙ্গে অব্যহত থাকবে দুধের সরবরাহ। জেলা প্রশাসনকে ব্যবস্থা করতে হবে যাতে খাবার বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়, বাজারে না আসতে হয়।

খোলা থাকছে যেসব  কেন্দ্রীয় সরকারি দফতর - প্রতিরক্ষা, পুলিশ, ট্রেজারি, পেট্রোলিয়াম, বিপর্যয় মোকাবিলা, পোস্ট অফিস, ন্যাশানল ইনফরমেটিকস সেন্টার, আর্লি ওয়ার্নিং এজেন্সি।

খোলা থাকছে যেসব কেন্দ্রীয় সরকারি দফতর - প্রতিরক্ষা, পুলিশ, ট্রেজারি, পেট্রোলিয়াম, বিপর্যয় মোকাবিলা, পোস্ট অফিস, ন্যাশানল ইনফরমেটিকস সেন্টার, আর্লি ওয়ার্নিং এজেন্সি।

খোলা থাকছে যেসব  রাজ্য  সরকারি দফতর- পুলিশ, হোম গার্ড, দমকল, বিপর্যয় মোকাবিলা, জেলা প্রশাসনের অফিস, বিদ্যুৎ পরিষেবা, জল সরবরাহ, পুরসভা (শুধু জল সরবরাহ ও পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক কর্মীরা দফতরে আসবেন, বাকিরা বাড়ি থেকে কাজ করবেন)।

খোলা থাকছে যেসব রাজ্য সরকারি দফতর- পুলিশ, হোম গার্ড, দমকল, বিপর্যয় মোকাবিলা, জেলা প্রশাসনের অফিস, বিদ্যুৎ পরিষেবা, জল সরবরাহ, পুরসভা (শুধু জল সরবরাহ ও পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক কর্মীরা দফতরে আসবেন, বাকিরা বাড়ি থেকে কাজ করবেন)।

ব্যাঙ্ক, বিমা অফিস, এটিএম খোলা থাকছে।

ব্যাঙ্ক, বিমা অফিস, এটিএম খোলা থাকছে।

প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার দফতর খোলা থাকছে।

প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার দফতর খোলা থাকছে।

প্রাইভেট সিকিউরিটি সার্ভিস অব্যহত থাকবে।

প্রাইভেট সিকিউরিটি সার্ভিস অব্যহত থাকবে।

টেলি যোগাযোগ, ইন্টারনেট পরিষেবা, তথ্য প্রযুক্তি সহায়ক পরিষেবা খোলা থাকছে। যতটা সম্ভব বাড়ি থেকে কাজ করতে হবে।

টেলি যোগাযোগ, ইন্টারনেট পরিষেবা, তথ্য প্রযুক্তি সহায়ক পরিষেবা খোলা থাকছে। যতটা সম্ভব বাড়ি থেকে কাজ করতে হবে।

পেট্রল পাম্প, রান্নার গ্যাসের এজেন্সি খোলা থাকছে।

পেট্রল পাম্প, রান্নার গ্যাসের এজেন্সি খোলা থাকছে।

বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র খোলা থাকছে এবং চালু থাকছে বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা।

বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র খোলা থাকছে এবং চালু থাকছে বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা।

খোলা রাখা হচ্ছে হিমঘর।

খোলা রাখা হচ্ছে হিমঘর।

loader