যৌন উত্তেজনা বাড়াতে ভায়াগ্রার চেয়েও বেশি শক্তিশালী এই ফল, আজই ট্রাই করুন

First Published 1, Apr 2020, 4:46 PM

সুস্থতার চাবিকাঠি ভালবাসার সম্পর্ক। আর সম্পর্কের  গাঢ় বন্ধন মানেই যৌন মিলন। অত্যাধিক কাজের চাপ, মানসিক টেনশনে থেকে স্ট্রেসের কারণে সম্পর্কে ছেদ ঘটছে অনেকেরেই। আর দীর্ঘদিন বাদে একে অপরের সঙ্গে যৌন মিলনে  আবদ্ধ হলেই সেই সম্পর্কে যেন একটা দুরত্ব চলে আসে। সেখান থেকে বিচ্ছেদ। এই ঘটনা আকছারই ঘটে চলছে আমাদের চারিপাশে। এমন অনেকেই আছেন সম্পর্কের যৌনতা বজায় রাখতে ভায়াগ্রার আসক্ত হয়ে পড়ছেন। যার সাইড এফেক্টে শরীরের প্রচুর ক্ষতি হচ্ছে। কিন্তু  এটা জানেন কি ভায়াগ্রার চেয়েও বেশি শক্তিশালী এমন এক ফল যা প্রাকৃতিক ভায়াগ্রার কাজ করে। যৌন উত্তেজনা তিনগুণ পর্যন্ত বাড়িয়ে তোলার ক্ষমতা রয়েছে এই ফলে।  তাই সম্পর্কের উষ্ণতা বজায় রাখতে ওষুধের বদলে ট্রাই করুন এই প্রাকৃতিক ভায়াগ্রা।

যারা যৌন মিলনে সক্ষম এবং যারা অতটাও সক্ষম নন তাদের জন্য ভীষণ উপকারি এই ফল। এই ফলের অন্দরেই লুকিয়ে রয়েছে সুস্থ যৌনতার চাবিকাঠি।

যারা যৌন মিলনে সক্ষম এবং যারা অতটাও সক্ষম নন তাদের জন্য ভীষণ উপকারি এই ফল। এই ফলের অন্দরেই লুকিয়ে রয়েছে সুস্থ যৌনতার চাবিকাঠি।

যৌন উত্তেজনা তিনগুণ বাড়িতে তুলতে  জুড়ি মেলা ভার তরমুজের।

যৌন উত্তেজনা তিনগুণ বাড়িতে তুলতে জুড়ি মেলা ভার তরমুজের।

তবে শুধু তরমুজই নয়, পাতিলেবুরও বিকল্প নেই। তরমুজ এবং পাতিলেবুর মিশ্রণই প্রাকৃতিক ভায়াগ্রার কাজ করে।

তবে শুধু তরমুজই নয়, পাতিলেবুরও বিকল্প নেই। তরমুজ এবং পাতিলেবুর মিশ্রণই প্রাকৃতিক ভায়াগ্রার কাজ করে।

তরমুজ ছোট ছোট করে কেটে মিক্সারে ব্লেড করে নিন। তবে শুধু তরমুজই নয়,সাদা অংশটাও খানিকাটা দিতে হবে। এবার তরমুজের রসটা একটি পাত্রের মধ্যে ঢেলে ভাল করে ফোটাতে থাকুন।

তরমুজ ছোট ছোট করে কেটে মিক্সারে ব্লেড করে নিন। তবে শুধু তরমুজই নয়,সাদা অংশটাও খানিকাটা দিতে হবে। এবার তরমুজের রসটা একটি পাত্রের মধ্যে ঢেলে ভাল করে ফোটাতে থাকুন।

এবং একই সঙ্গে একটা গোটা পাতিলেবুর রস মেশাতে থাকুন। ফোটানোর সময় মিশ্রণটি যেন পুড়ে না যায় সেদিকে খেয়াব রাখবেন।

এবং একই সঙ্গে একটা গোটা পাতিলেবুর রস মেশাতে থাকুন। ফোটানোর সময় মিশ্রণটি যেন পুড়ে না যায় সেদিকে খেয়াব রাখবেন।

মিশ্রণটি ঘন হয়ে গেলে নামিয়ে নিয়ে ঠান্ডা করে একটি পাত্রের মধ্যে ঢেলে রাখুন। তারপর সেটিকে ফ্রিজে রেখে দিন।

মিশ্রণটি ঘন হয়ে গেলে নামিয়ে নিয়ে ঠান্ডা করে একটি পাত্রের মধ্যে ঢেলে রাখুন। তারপর সেটিকে ফ্রিজে রেখে দিন।

প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে এবং রাতে খাবার আগে দু চামচ করে ওই মিশ্রণ খেয়ে নিন।

প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে এবং রাতে খাবার আগে দু চামচ করে ওই মিশ্রণ খেয়ে নিন।

যাদের ওজন বেশি তারা ৩-৪ চামচ করেও খেতে পারেন।

যাদের ওজন বেশি তারা ৩-৪ চামচ করেও খেতে পারেন।

তবে বিশেষজ্ঞদের দাবি, এটি যদি নিয়ম করে  খাওয়া যায়, তাহলে হাতেনাতে ফল পাবেন। তাহলে আর দেরি কিসের। সম্পর্কের উষ্ণতা বজায় রাখতে একবার ট্রাই করতে ক্ষতি কী।

তবে বিশেষজ্ঞদের দাবি, এটি যদি নিয়ম করে খাওয়া যায়, তাহলে হাতেনাতে ফল পাবেন। তাহলে আর দেরি কিসের। সম্পর্কের উষ্ণতা বজায় রাখতে একবার ট্রাই করতে ক্ষতি কী।

loader