জানুয়ারী মাসেই নতুন রাজনৈতিক দল আনছেন দক্ষিণী সুপারস্টার রজনীকান্ত। চলতি মাসের শেষে ৩১ ডিসেম্বর বড় ঘোষণা হবে। বৃহস্পতিবার, তামিল ভাষায় টুইট করে এমনটাই জানিয়েছেন রজনী। এদিন এক টুইট বার্তায় থালাইভা বলেছেন, আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে তাঁরাই জিততে চলেছেন। কোনও ধর্ম বা বর্ণের পার্থক্য ছাড়া একটি সৎ, স্বচ্ছ, দুর্নীতিমুক্ত ও আধ্যাত্মিক রাজনীতি করবে তাঁর দল, এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

আগামী বছরই তামিলনাড়ু বিধানসভা নির্বাচন। ঠিক তার আগেই তামিল রাজনীতিতে শোরগোল ফেলে দিলেন রজনীকান্ত। তামিলভূমে দক্ষিণী সুপারস্টারের জনপ্রিয়তা আকাশছোঁয়া। কাজেই, এই প্রথম রাজনীতিতে পা রাখলেও তাঁর দল ভালই প্রভাব ফেলবে নির্বাচনের ফলাফলে, এমনটাই মনে করা হচ্ছে।

গত কয়েকদিন ধরেই অবশ্য রজনীকান্তের নতুন রাজনৈতিক দল খোলা নিয়ে জল্পনা চলছিল। গত সোমবার রজনীকান্ত 'রজনী মাক্কাল মন্দরম'-এর সদস্য ও জেলা সম্পাদকদের সঙ্গে সাক্ষাত করেছিলেন। সেইদিন থেকেই কবে নতুন দলের ঘোষণা হবে, তাই নিয়ে চর্চা চলছিল। 'রজনী মাক্কাল মন্দরম'এর সদস্যরা এই সংগঠনটিকে রজনীকান্তের ফ্যান ক্লাবের সম্প্রসারণ বলে দাবি করলেও আদতে এটি একটি অঘোষিত রাজনৈতিক দল।

তবে রাজনীতিতে আসার পরিকল্পনা রজনীকান্তের মতুন নয়। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরেই তিনি এই ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। কিন্তু, তাঁর স্বাস্থ্য বাধ সেধেছিল। দক্ষিণী সুপারস্টারকে চিকিৎসকরা সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন ব্যস্ত রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়ালে তাঁর স্বাস্থ্যের আরও অবনতি ঘটবে। চলতি বছরের শুরুতেও ফের একবার রাজনীতিতে পা রাখার জল্পনা ভাসিয়েছিলেন রজনী।

তিনি সেই সময় স্পষ্ট করে দিয়েছিলেন জিতলেও তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী হতে চান না তিনি। কারণ তাঁর মতে প্রশাসনিক কাজে একজন দক্ষ ও শিক্ষিত ব্যক্তির প্রয়োজন। সেই ক্ষমতা তাঁর নেই। যদিও তিনি দলের নেতৃত্ব দেবেন তিনিই।