দক্ষিণ দিল্লির জামিয়া নগর এলাকায় সিএএ-প্রতিবাদ মিছিলে এক সশস্ত্র দৃষ্কৃতীর গুলি চালানোর পকর মাঝে একটা দিনের বিরতি। শনিবার ফের একবার সিএএ বিরোধী প্রতিবাদে চলল গুলি। এবার শাহিনবাগে। এখানে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে স্থানীয় বাসিন্দারা প্রায় দুই মাস ধরে শিবির করে রয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন শাহিনবাগে নাগরিকত্ব (সংশোধনী) আইনের বিরুদ্ধে যে প্রতিবাদ চলছে সেই স্থানে মঞ্চের ঠিক পিছনেই গুলি চালায় ওই দুষ্কৃতী। তবে এই ঘটনায় কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। গুলি ছোড়ার পরই অবশ্য তাকে পাকড়াও করে পুলিশ। পুলিশ তাকে ধরে নিয়ে যাওয়ার সময় সে চিৎকার করে বলে, 'হামারে দেশ মে কিসি কি নাহি চলেগি, স্রিফ হিন্দুও কি চলেগি' (আমাদের দেশে আর কারোর কথা চলবে না, শুধু হিন্দুদের কথা চলবে)।

আততায়ী নিজেই জানিয়েছে তাঁর নাম কপিল গুজ্জর। তিনি নয়ডা সীমান্তবর্তী গ্রাম দাল্লুপুরার বাসিন্দা। কোনও রাখঢাক না রেখে সে বলে, 'আমাদের দেশে শুধু হিন্দুদের কথাই চলবে'।

ঘটনার পর শাহিনবাগের মঞ্চের পিছনে বুলেটের ফাঁকা খোল পড়ে থাকতে দেখা যায়। প্রতিবাদস্থলের মহিলারা এরপর ওই এলাকায় মানববন্ধন করেন।

একদিন আগেই এক স্থানীয় ঠিকাদার শাহিনবাগের প্রতিবাদস্থলে এসে বন্দুক হাতে প্রতিবাদীদের ভয় দেখায়। তাদের বিক্ষোভ শেষ করার হুমকি দেয়। পুলিশ আপাতত, ওই বন্দুকবাজকে হেফাজতে নিয়েছে। তাকে জেরা করা হচ্ছে। দিল্লির ডিসিপি, চিন্ময় বিসওয়াল জানিয়েছেন, ওই বন্দুকবাজ আকাশের দিকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশ তৎক্ষণাৎ তাকে ধরে ফেলে।