অযোধ্য়ার বিতর্কিত জমিতে মসজিদের আগে অন্য কোনও স্থাপনা ছিল। ফাঁকা জমিতে বাবরি মসজিদ হয়নি। আগে যে স্থাপনা ছিল তা ইসলামিক স্থাপত্য নয়। অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণা করতে গিয়ে সাফ জানালেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। তিনি জানান এএসআই-এর যে সন্ধানকে তাঁরা গুরুত্ব দিয়েছেন।

তিনি জানিয়েছেন আর্কিওলজিকাল সার্ভে অব ইন্ডিয়া যে খোঁজ চালিয়েছিল, তাতে মসজিদের আগে অন্য কোনও স্থাপনা ছিল, তার প্রমাণ মিলেছে। তবে তা মন্দির চিল কিনা তার প্রমাণ নেই। একই সঙ্গে মন্দির ভেঙে মসজিদ হয়েছে, তারও কোনও প্রমাণ নেই।

একই সঙ্গে আদালত জানিয়েছে ১৮৫৬-৫৭ সাল পর্যন্ত ওই জায়গায় নামাজ পড়া হত তার রকোনও প্রমাণ মেলেনি। কিন্তু ওই জায়গায় হিন্দুরা দীর্ঘদিন ধরে পুজো করে। অযোধ্যাকেই রামের জন্মভূমি বলে বিশ্বাস করে। ১৮৫৬ সালের আগে পর্যন্ত হিন্দুরা ভিতরেই পুজো করত, পরিক্রমাও করত। কিন্তু মুসলিমদের বাধা পাওয়ার পর তারা বাইরে পুজো করতে শুরু করে। কিন্তু শুধুমাত্র বিশ্বাসের জোরে অধিকার দেওয়া যায় না।