অযোধ্যার বিতর্কিত জমি রামলাল্লার। সাফ জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। মন্দির তৈরি করতে তিন মাসের মধ্যে কমিটি গঠন করার নির্দেশ দেওয়া হল কেন্দ্রীয় সরকারকে। একই সঙ্গে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে বিকল্প জমি দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হল।

অযোধ্য়ার বিতর্কিত ২.৭৭ একর জমি শেষ পর্যন্ত রামলালাকেই দেওয়া হল। অর্থাৎ বিতর্কিত জমিতে রাম মন্দিরই তৈরি করা হবে। এর জন্য সরকার পক্ষকে তিন মাস সময় দেওয়া হয়েছে একটি ট্রাস্ট গঠনের। সেই ট্রাস্টই মন্দির তৈরি করবে।

তবে জয় হয়েছে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডেরও। তাদের ৫ একর জমি দেওয়া হবে মসজিদ নির্মাণের জন্য। অযোধ্যাতেই বাল জায়গায় এই জমি দিতে হবে। এই রায় মেনে নিয়েছে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড। তারা জানিয়েচে, নতুন জমিতে আরও বড় আকারে মসজিদ গঠন করা হবে।

এদিন শুরুতেই আদালত জানায় অযোধ্যার জমির অধিকার ছিল সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের হাতে, শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের হাতে ছিল না। তারপর বলা হয়, আর্কিওলজিকাল সার্ভে অব ইন্ডিয়ার খননে মসজিদের আগে অন্য কোনও স্থাপনা ছিল, তার প্রমাণ মিলেছে। সেই স্থাপনা ইসলামিক ছিল না। হনুমান ও অন্যান্য দেবদেবীর মূর্তি পাওয়া গিয়েছে।

তবে সেই স্থাপনা মন্দির ছিল, এবং মন্দির ভেঙে মসজিদ তৈরি করা হয়েছিল তা মানেনি আদালত। তবে ওই স্থানে হিন্দুরা দীর্ঘদিন ধরে পুজো ও পরিক্রমা করত তা জানিয়েছে আদালত। আরও বলা হয় ১৮৫৬-৫৭ সালের আগে ওই জায়গায় নামাজ পড়া হত তার কোনও প্রমাণ নেই। ১৮৫৬ সালের আগে হিন্দুরা ভিতরেই পুজো করত, পরে বাধা পাওয়ার তারা বাইরে পুজো করতে শুরু করে।