আড়াই বছর আগে বৃদ্ধি পেয়েছিল বেতন। এরপর ২০১৯ থেকে একাধিকবার বেতন বৃদ্ধির দাবি তোলা হয় ব্যাঙ্ককর্মীদের পক্ষ থেকে। কিন্তু সেই দাবি না মানায়, আগে থেকেই স্থির করা হয়েছিল ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের পথেই নামবেন কর্মীরা। বৃহস্পতিবার দীর্ঘক্ষণ বৈঠক চলে মুম্বইয়ে। কিন্তু সেই বৈঠক ব্যর্থ হওয়ায় দেশ জুড়ে ব্যাঙ্ক বন্ধ রাখা হবে শুক্রবার ও শনিবার।

নির্দিষ্টদাবি না মানার কারণে আন্দোলন থেকে অনড় রইলেন কর্মীরা। টানা চারদিন ব্যাপী বন্ধ ব্যাঙ্ক। ফলে গ্রাহকদের সমস্যার মুখে পড়তে হবে। এটিএম বিভ্রান্তিও ঘটার সম্ভাবনা প্রবল। বর্তমানে ব্যাঙ্ক কর্মীদের একাধিক দাবি। এই দাবি যদি না মানা হয় তবে ৩১ জানুয়ারি ও ১ ফেব্রুয়ারি ধর্মঘটের পর ১১, ১২ ও ১৩ মার্চ ধর্মঘট করা হবে। তখনও যদি দাবি না মানা হয় তবে ১ এপ্রিল থেকে লাগাতার ধর্মঘটের ডাক দেবেন ব্যাঙ্ককর্মীরা। 

পাশাপাশি চারদিন ধরে ব্যাঙ্ক বন্ধের জেরে বেজায় বিপাকে পড়তে হবে সাধারণ মানুষদের। সরস্বতী পুজোর ছুটির পরই ব্যাঙ্ক ধর্মঘট। তারপর রবিবার। ফলে এটিএম-এ টাকার ঘাটতি থাকবে। যার জেরে সমস্যার মুখে পড়তে হবে দেশবাসীদের।