মঙ্গলবার বিকেলে আইপিএল ২০২০-এর ফাইনাল। কিন্তু তার আগেই টি২০ ম্য়াচের উত্তেজনা অনুভব করা যাচ্ছে বিহার বিধানসভা নির্বাচন ২০২০-এর ভোট গণনায়। এদিন সকাল ৮টা থেকে ৫৫টি ভোটকেন্দ্রে গণনা শুরু হয়েছে। আর তারপর থেকে গণনা এগোচ্ছে একেবারে কোনও হাড্ডাহাড্ডি টি২০ ম্যাচের মতোই।

দিনের শুরুতে বলা যেতে পারে গণনার পাওয়ার প্লে পর্বে জেডিইউ-বিজেপির এনডিএ জোটকে অনেকটাই পিছনে ফেলে এগিয়ে গিয়েছিল আরজেডি-কংগ্রেস-বাম দের মহাজোট। একটা সময় এনডিএ এগিয়ে ছিল ১০৪টি আসনে। আর মহাজোট এগিয়ে ছিল ১২১ আসনে। এমনকী বিশিষ্ট জেডিইউ নেতা কেসি ত্যাগি কার্যত হার স্বীকার করে নিয়েছিলেন। সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে তিনি বলেন, 'গত এক বছরে এমন কিছু ঘটেনি যাতে ব্র্যান্ড নীতিশ কুমার বা ব্র্যান্ড জেডি (ইউ)-এর প্রভাব কমে যাবে। স্রেফ কোভিড-এর জন্য আমরা হেরে গেলাম।'

আরও পড়ুন - Live Results Update- এনডিএ ১২৭, মহাজোট ১০৪, অন্যান্য ১২

আৎও পড়ুন - গণনার আগে তেজস্বীই 'বিহারের মুখ্যমন্ত্রী' সোশ্যাল মিডিয়ায়, আমল দিতে নারাজ নীতিশ শিবির

আরও পড়ুন - ভোটযুদ্ধে পিছিয়ে তেজস্বীর মহাজোট, তারপরেও মাছ আর দই নিয়ে ভিড় বাড়াচ্ছে ভক্তরা

কিন্তু, বেলা গড়াতেই ক্রমে ভোটের চিত্রটা পাল্টে যেতে শুরু করেছে। বেলা সাড়ে ১১টার সময় এনডিএ জোট এগিয়ে রয়েছে ১৩১ আসনে, আর মহাজোট এগিয়ে ১০০ আসনে। বাকিরা এগিয়ে ১২ আসনে। এনডিএ জোটের মধ্যে জেডিইউ এগিয়ে ৫২ আসনে। আর বিজেপি ৭৩ আসনে এগিয়ে, এখনও অবধি তারাই রাজ্যের সর্ববৃহ দল হওয়ার বিষয়ে এগিয়ে রয়েছে।

মহাজোটের মধ্যে আরজেডি এগিয়ে ৫৯ আসনে, কংগ্রেস এগিয়ে ২১ আসনে, আর বামেরা এগিয়ে ১৯ আসনে। অন্যান্যদের মধ্যে, মায়াবতীর বসপা এগিয়ে ২টি আসনে আর ওয়াইসির এআইমিম এগিয়ে ২টি আসনে। আর চিরাগ পাসওয়ানের এলজেপি এগিয়ে ৫টি আসনে।

তবে এখনও পর্যন্ত গড়ে মাত্র ৩ রাউন্ডের গণনা শেষ হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের মতে মাত্র ১৫ শতাংশ ভোট গণনা হয়েছে। এর মধ্যে ৫৪ টি আসনে দুই প্রার্থীর মধ্যে ভোটের ব্যবধান ১০০০-এরও কম।  আর এর মধ্যে ২৩টি আসনে ব্যবধান ৫০০ ভোটেরও কম। কাজেই বিহার প্রিমিয়ার লিগের শেষ চার ওভারে কারোর পাওয়ার হিটিং কিংবা ইয়র্কার ভোটের পুরো চিত্রটা বদলে দিতেই পারে। গণনার প্রবণতা এখনও অবধি যা রয়েছে তাকতে এই ম্যাচের ফয়সালা গড়াতে পারে সুপার ওভারেও।