প্রয়াত প্রবীণ নেতা তথা গুজরাত থেকে কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ আহমেদ পটেল। বুধবার ভোররাতে তিনি গুরুগ্রামের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে বয়েস হয়েছিল ৭১ বছর। আহমেদ পটেলের পুত্র, টুইট করে এই মৃত্যু সংবাদ জানিয়েছেন। শোক প্রকাশ করেছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

 

 

সূত্রের খবর,  সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। এরপর থেকে শারীরিক অবস্থা অবনতির দিকে যেতে থাকে। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, মাল্টি-অর্গান ফেলিওরে মৃত্যু হয়েছে তাঁর।   আহমেদ পটেল-পুত্র টুইটে জানিয়েছেন,'গুজরাটের রাজ্যসভার সাংসদ ভোর সাড়ে তিনটে নাগাত মারা গিয়েছেন। তিনি আরও জানান, অত্যন্ত দুঃখ ও শোকের সঙ্গে আমি জানাচ্ছি, আমার বাবা আহমেদ পটেল প্রয়াত হয়েছেন। সম্প্রতি কোভিডে আক্রান্তে হওয়ার পর থেকেই তাঁর শারীরিক অবস্থা খারাপ হতে শুরু করে। মাল্টি-অর্গান ফেলিওরের ফলে ওনার মৃত্যু হয়েছে।'

 

উল্লেখ্য, জাতীয় কংগ্রেসের কোষাধক্ষের পদেও দায়িত্ব পালন করেছেন আহমেদ পটেল। সনিয়া গাঁধীর রাজনৈতিক সচিবও ছিলেন তিনি। ১ অক্টোবার তিনি করোনায় আক্রান্ত হন। সেইসময় তাঁর সংস্পর্শে আসা সকলকেই তিনি আইসোলেশনে যেতে পরামর্শ দিয়েছিলেন। ১৫ নভেম্বর গুরুগ্রামের মেদান্ত হাসপাতালের আইসিইউ-তে তিনি ভর্তি হন। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না। বুধবার ওই হাসপাতালেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তাঁর মৃত্যুতে  শোক প্রকাশ করেছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গাঁধী।