কেঁপে উঠল রাজধানী দিল্লি-সহ উত্তর ভারতের বিস্তৃর্ণ এলাকা। জোরালো কম্পন অনুভুত হল কাশ্মীর, হরিয়ানা, পঞ্জাবে, উত্তরপ্রদেশ ও উত্তরাখণ্ড-এও। বিকেল ৫টা বেজে ১২ মিনিট নাগাদ এই ভূমিকম্প হয়। উত্তরভারতের পাশপাশি পাকিস্তানেও এই ভূমিকম্প কে ঘিরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। জানা গিয়েছে এর উৎসস্থল আফগানিস্তানের হিন্দুকুশ পর্বত এলাকা। সেখানে রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৬.৮ ছিল বলে জানা গিয়েছে প্রাথমিকভাবে।

এই ভূমিকম্পের কেন্দ্রের গভীরতা ছিল ভূ-পৃষ্ঠের ১৯০ কিলোমিটার নীচে। আফগান রাজধানী কাবুলের প্রায় ২৪৫ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে ঘটে এই ভূমিকম্প। কিন্তু এই কম্পন এতটাই জোরালো ছিল যে দিল্লি ও তার আশপাশের এলাকাতেও শক্তিশালী কম্পন অনুভূত হয়, এবং তা কমপক্ষে ১০ সেকেন্ড ধরে চলেছে। মথুরা, লখনউ, প্রয়াগরাজ, চন্ডীগড়, ফরিদকোট, ডালহৌসি, চম্বা, দেরাদুন, শ্রীনগর, জম্মু, নয়ডা, গাজিয়াবাদ, গুড়গাঁও-সহ উত্তর ভারতের বেশ কয়েকটি জায়গায় ভূমিকম্পের ফলে আতঙ্কিত বাসিন্দারা বাড়ি ও অফিস থেকে বেরিয়ে নিচে নেমে আসেন।

পাকিস্তানের ইসলামাবাদ ও লাহোর শহরেও একই রকম চিত্র দেখা গিয়েছে। রাওয়ালপিন্ডি, লাহোর, মিরপুর কাশ্মীর, মুজাফ্ফরাবাদ, পেশোয়ার, বুনের, বালাকোট, ডেরা ইসমাইল খান এবং পাকিস্তানের অন্যান্য শহরগুলিতেও জোরালো কম্পন অনুভূত হয়েছে। অবধি অবশ্য ভূমিকম্পের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলগুলিতে কোনও সম্পত্তি ও প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়নি।