'ভারতের কম্পিউটার শিল্পের জনক' আর নেই। বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) দেহাবসান ঘটল বর্তমানে ভারতের বৃহত্তম সফ্টওয়্যার কনসাল্টেন্সি সংস্থা টাটা কনসালটেন্সি সার্ভিসেস বা টিসিএস-এর প্রতিষ্ঠাতা তথা প্রথম সিইও ফকিরচাঁদ কোহলি। বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর।

তাঁর জন্ম হয়েছিল এখনকার পাকিস্তানের পেশওয়ার শহরে। লাহোরের পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ  এবং বিএসসি (অনার্স, স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত ) করে তিনি ভারতীয় নৌবাহিনীতে যোগ দিতে চেয়েছিলেন। তবে, কানাডার কুইন্স বিশ্ববিদ্যালয়ে বৃত্তি পেয়ে সেখানে ইলেক্ট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে বিএসসি (অনার্স) করেন। কানাডিয়ান জেনারেল ইলেকট্রিক কোম্পানিতে এক বছর চাকরি করার পর আবার ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি থেকে ইলেক্ট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং-এ এমএস করেন।

আরও পড়ুন - গাছের পেটে হনুমান, বাঘের ছবি তুলতে গিয়ে আশ্চর্য ঘটনার সাক্ষী বন্যপ্রাণ ফটোগ্রাফারের

আরও পড়ুন - ২৫ বছর পর্যন্ত কমে যাচ্ছে বয়স, যুগান্তকারী আবিষ্কার ইজরাইলি বিজ্ঞানী-গবেষকদের

আরো পড়ুন - 'অন্যদের ছেড়ে মোদীকে আনুন', এবার সরাসরি প্রধানমন্ত্রীকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন ওয়াইসি

১৯৫১ সালে টাটা ইলেকট্রিক কোম্পানিজ-এ যোগ দিয়েছিলেন এফসি কোহলি। সিস্টেমের অপারেশন পরিচালনার জন্য লোড ডিসপ্যাচিং সিস্টেম স্থাপনে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নিয়েছিলেন তিনি। ১৯৭০ সালে টাটা ইলেকট্রিক কোম্পানির ডিরেক্টর হয়েছিলেন। তাঁর হাতেই তৈরি হয়েছিল টিসিএস, যে সংস্থার নেতৃত্বেই ভারতের তথ্য প্রযুক্তি শিল্পের বিপ্লব এসেছিল বলে মনে করা হয়। ভারতে গড়ে উঠেছিল ১০০ বিলিয়ন ডলারের বেশি মূল্যের আইটি শিল্প।

টাটা সন্স-এর ওয়েবসাইটে তাঁর সম্পর্কে বলা হয়েছে, ভারতে যখন কম্পিউটারিকরণের সম্ভাবনা বা তথ্য়পরযুক্তি শিল্প থেকে কতটা লাভ হতে পারে, সেই সম্পর্কে কারোর কোনও ধারণা ছিল না, তখনই এফসি কোহলি আইটিটিকে জাতীয় উন্নয়নের মাধ্যম হিসাবে দেখতে পেয়েছিলেন। কারণ তিনি স্বভাবসুলভ একজন দূরদর্শী মানুষ। তিনি 'ভারতীয় সফটওয়্যার ইন্ডাস্ট্রির জনক'।