মেহবুবা মুফতি ও ওমর আব্দুল্লা ও ফারুক আবদুল্লার পর এবার শাহ ফয়জল। কাশ্মীরে এদিন জন নিরাপত্তা আইনে বন্দি হলেন আইএএস টপার শাহ ফয়জল।

গত অগস্ট মাসে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদের পর থেকেই আটক করা হয় তিন প্রাক্তন মুখ্য়মন্ত্রী, মেহবুবা মুফতি ও ওমর আবদুল্লা ও ফারুক আবদুল্লাকে। এছাড়াও উপত্য়কায় ওই আইনে আটক করা হয় ফারুক আব্দুল্লা, আলি মহম্মদ সাগর, নইম আখতার, সারতাজ মাদানি ও হিলাল লোনকে। এই আইনে আদালতের কোনও শুনানি ছাড়াই তিনমাস আটক করে রাখা যেতে পারে কোনও ব্য়ক্তিকে। প্রয়োজনে এই মেয়াদ আরও বাড়ানো যায়। এই আইনে কোনও ব্য়ক্তিকে রাষ্ট্রের সুরক্ষা বা আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য় বিপজ্জনক হতে পারে, এমন ব্য়ক্তিকেই গ্রেফতার করা হয়। জম্মু কাশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্য়মন্ত্রীর এবার বিনা বিচারে আটক রাখা হল শাহ ফয়জলকে।

২০০৯ সালের আইএএস টপার ছিলেন শাহ ফয়জল। তিনি তাঁর উজ্জ্বল ভবিষ্য়ৎকে প্রশ্নের মুখে ফেলে উপত্য়কার মানুষের লড়াইকে এগিয়ে নিয়ে যেতে রাজনীতিতে এসেছিলেন। প্রসঙ্গত, ২০১৯-এর জানুয়ারিতে কাশ্মীরে নির্বিচারে হত্য়া হয় বলে অভিযোগ। তারই প্রতিবাদে আইএএসের চাকরি থেকে ইস্তফা দেন তিনি। আমেরিকার হার্ভার্ডে পড়াশোনা করেছিলেন তিনি। মেধাবী এই ছাত্র ২০০৯ সালে আএএসে শীর্ষ স্থান দখল করেন।