পাক অধিকৃত কাশ্মীরে জঙ্গি ঘাঁটিতে হামলা চালালো ভারতীয় সেনাবাহিনী। কাশ্মীরের তাঙধর সেক্টরের বিপরীতে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের (পিওকে) ভিতরে বেশ কয়েকটি সন্ত্রাসবাদী শিবির গড়ে সেখান থেকে পাকিস্তান সেনাবাহিনী জঙ্গীদের ভারতীয় ভূখণ্ডে পাঠাতে চেষ্টা করছিল বলে অভিযোগ। তা ঠেকাতেই এই দিনের আক্রমণ।

রবিবার সকালে প্রথম আক্রমণ শুরু করেছিল পাক সেনাই। কুপওয়ারা জেলার তাঙধর সেক্টরে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে তীব্র গোলাগুলি বর্ষণ সুরু করে পাক রেঞ্জাররা। পাক গোলার আঘাতে এক অসামরিক নাগরিক ও দুই ভারতীয় সেনার মৃত্যু হয়। তিন সেনা সদস্য সহ আরও আটজন গুরুতর আহত হন। ছয়টি বাড়িও ধ্বংস হয়। এছাড়া একটি ধানের গোলা, দুটি গোশালা ও প্রচুর গবাদী পশুরও ক্ষতি হয়েছে।

এরপরই পাল্টা আক্রমণের পথে যায় ভারতীয় সেনা। যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে গোলাগুলি চালানোর মাঝে সীমান্ত পার করে ভারতে পাকসেনা জঙ্গি অনুপ্রবেশ ঘটাতে চাইছিল বলে জানা গিয়েছে। তা বুঝতে পেরেই ভারতীয় সেনাবাহিনী তাঙধর সেক্টরে সীমান্তের ওইপাড়ে থাকা নীলম উপত্যকার সন্ত্রাসবাদি শিবিরগুলি লক্ষ্য করে ভারী বন্দুক ও কামান দিয়ে হামলা চালানো শুরু করে।

সূত্রের খবর পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের নীলম উপত্যকায় জঙ্গিদের অন্তত চারটি লঞ্চ প্যাড ধ্বংস হয়েছে। বেশ কিছু জঙ্গির হতাহতের খবর পাওয়া যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে এই হামলায় অন্তত ৪-৫ জন পাকিস্তানি সেনা নিহত হয়েছে এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে তা নিশ্চিত।