অ্যান্টিগুয়াতে গা ঢাকা গিয়ে থাকা ভারতীয় অপরাধী মেহুল চোকসি নিখোঁজ। এই খবরের সত্যতা স্বীকার করেছেন অ্যান্টিগুয়ার প্রধানমন্ত্রী গ্যাস্টন ব্রাউনি। অ্যান্টিগুয়ার পুলিশ তার খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে। পরিবারের পক্ষ থেকে নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়েছে। তার প্রেক্ষিতেই তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

মেহুল চোকসির পরিবার এই পরিস্থিতিতে অন্য দেশের থেকেও সাহায্যের আবেদন করেছেন। মেহুল চোকসি পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকের পলাতর ঋণখেলাপী। সংবাদসংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাতকারে চোকসির আইনজীবী বিজয় আগরওয়াল জানিয়েছেন অ্যান্টিগুয়া ও বারবুডাতে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না মেহুল চোকসিকে। অ্যান্টিগুয়া সরকারও এই তথ্য প্রকাশ করেছেন। তাঁর পরিবার অন্ধকারে। যথেষ্ট উদ্বেগে রয়েছে চোকসির পরিবার। 

 

উল্লেখ্য মেহুল চোকসির বিরুদ্ধে একাধিক অপরাধের অভিযোগ রয়েছে সিবিআই ও ইডির কাছে। কয়েক হাজার কোটি টাকার ঋণ না শোধ করার মতো অপরাধের অভিযোগ রয়েছে চোকসির বিরুদ্ধে। অ্যান্টিগুয়াতে চিরুণি তল্লাশি চলছে বলে খবর। জানা গিয়েছে চোকসিকে শেষ বার দেখা যায় এক পাঁচ তারা হোটেলে ডিনার করতে। তারপর তাঁকে আর দেখা যায়নি। 

এদিকে, তার গাড়িটি মিলেছে জলি হারবার এলাকা থেকে। কিন্তু তাঁর কোনও খোঁজ মেলেনি বলে অ্যান্টিগুয়ার পুলিশ জানিয়েছে। এর আগে একাধিকবার তাঁর অ্যান্টিগুয়ার নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। যদিও মেহুল চোকসির আইনজীবী বিজয় আগরওয়াল জানিয়ে দেন, অ্যান্টিগুয়ার বৈধ নাগরিক চোকসি। সে বিষয়ে যথেষ্ট প্রমাণপত্র রয়েছে তাঁদের কাছে। তবে অ্যান্টিগুয়া সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল চোকসির নাগরিকত্ব খারিজ করা হবে ও তাকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হবে।