বিমান চালকদের সঙ্গে কোনওরকম পরামর্শ না করেই 'লিভ উইথআউট পে'-র মতো প্রকল্পের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হয়েছে। সোমবার এয়ার ইন্ডিয়া সংস্থাকে চিঠি দিয়ে এই বিষয়ে অভিযোগ জানালো পাইলটদের সংগঠন। এর আগে বহু কর্মীকে বিনা বেতনের ছুটিতে পাঠানোর কথা ঘোষণা করেছিল এই রাষ্ট্রায়ত্ব বিমান পরিবহন সংস্থা। যার জেরে চূড়ান্ত সমস্যায় পড়েছে সংস্থার বহু কর্মী।

এমনিতেই গত কয়েক বছর ধরে লাভের মুখ দেখতে না পেয়ে ধুঁকছিল এই রাষ্ট্রায়ত্ব সংস্থা। আরও বেশ কিছু রাষ্ট্রায়ত্ব সংস্থার মতোই এয়ার ইন্ডিয়া-কেও বিক্রি  করে দেওয়ার সিদ্ধাান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু, এখনও বিষয়টি চূড়ান্ত হয়নি। এরমধ্যে করোনাভাইরাস মহামারির জেরে বিশ্ব জুড়েই উড়ান শিল্প প্রায় ভেঙে পড়েছে কিছু মালবাহী বিমান বাদ দিলে যাত্রীবাহী বিমান চলাচস প্রায় বন্ধই বলতে গেলে। এই অবস্থায় এয়ার ইন্ডিয়া বিনা বেতনে ছুটি'র প্রকল্পের কথা ঘোষণা করে।

অর্থাৎ, কর্মীরা চাইলে স্বেচ্ছায় বিনা বেচনের ছুটিতে যেতে পাারেন। প্রকল্পটিকে এয়ার ইন্ডিয়া কর্মচারী ও উড়ান সংস্থা - দুই পক্ষের জন্য়ই লাভবান বলে ব্যাখ্যা করেছিল। তাদের মতে এতে করে, বিমান যখন চলছে সেই সময়টায় কর্মীরা অন্যান্য কাজে যুক্ত হতে পারবেন। অন্যদিকে সংস্থারও তাঁদের মাইনে বাবদ অর্থ বাঁচবে।

এদিন এয়ার ইন্ডিয়া পাইলটস অ্যাসোসিয়েশন বা আইসিপিএ রাষ্ট্রায়ত্ব বিমান পরিবহন সংস্থাকে চিঠি দিয়ে এই প্রকল্পেরই বিরোধিতা করেছে। তারা সাফ জানিয়ে দিয়েছে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে একপাক্ষিকভাবে। কর্মী ও সংস্থা - উভয়ের লাভের দাবি করা হলেও, কর্মীরা সত্যিই এমন প্রকলল্প চান কিনা, তা জানার চেষ্টা অবধি করা হয়নি। এই একপাক্ষিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিরোধিতা করেছে তারা। সংস্থা তাদের চিঠির উত্তরে কী জানায়, তার ভিত্তিতে পাইলটদের অ্য়াসোসিয়েশন পরের পদক্ষেপ নেবে।