ভোটের ফল বের হওয়ার পর ১৭ দিন কেটে গিয়েছে। এখনও মহারাষ্ট্রে কোনও দল বা জোট সরকার গঠন করতে পারেনি। এই এঅবস্থায় আর অপেক্ষা করতে চাইছেন না রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারি। সূত্রের খবর কেন্দ্রের কাছে তিনি মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির সুপারিশ করেছেন। এদিকে এনসিপি তাদের সিদ্ধান্ত জানাবার আগেই তিনি কেন এমন সুপারিশ করলেন, তাই নিয়ে প্রশ্ন তুলল শিবসেনা।

রবিবার একক বৃহত্তম দল হিসেবে সরকার গঠনের ডাক ফিরিয়ে দিয়েছিল বিজেপি। সোমবার রাতে শিবসেনা সরকার গঠনের দাবি জানালেও সকমর্থনের চিঠি পেশ করতে পারেনি। তাদের অতিরিক্ত সময় দেও.য়ার আর্জি ফিরিয়ে দিয়ে তৃতীয় বৃহত্তম দল হিসেবে শরদ পওয়ারের এনসিপি-কে সরকার গঠনের আহ্বান জানান।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত এনসিপি-কে সময় দেওয়া হয়েছে। সেই মতো এদিন পরবর্তি পদক্ষেপ ঠিক করা নিয়ে দফায় দফায় বৈঠক করছে শিবসেনা, এনসিপি ও কংগ্রেস। কখন নিজেদের মধ্য়ে কখনও বা জোট বা সম্ভাব্য জোট সঙ্গীদের মধ্য়ে আলোচনা চলছে। কিন্তু তার আগেই রাজ্যপাল কেন্দ্রের কাছে মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির সুপারিশ করেছেন বলে জানা যাচ্ছে।

মহারাষ্ট্রের রাজ্যপালের দপফতর থেকে অবশ্য এই বিষয়ে এখনও সরকারি কোনও বিবৃতি দেওয়া হয়নি। তবে গত ১৭ দিন ধরে রাজনৈতিক দলগুলি মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন নিয়ে যে নাটক করে চলেছে, তা আর দীর্ঘায়িত করতে চাইছেন না রাজ্যপাল, এমনটাই জানা যাচ্ছে। সেই কারণেই শিবসেনার বাড়তি সময়ের আবেদন মানেননি তিনি। এনসিপি সময় চাইলেও তা দেওয়া হবে না বলেই খবর। তারপর সঙ্গে সঙ্গেই সম্ভবত রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু করতে পারেন রাজ্যপাল কোশিয়ারি।

তহবে রাজ্যপালের এই সুপারিশের খবর ছড়িয়ে পড়তেই তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন কংগ্রেস ও শিবসেনা নেতারা। শিবসেনা নেত্রী প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী ও কংগ্রেস নেতা ররাজ্যপালের এই  সুপারিশকে চ্যালেঞ্জ করে টুইট করেছেন।