করোনা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এবার ২০ লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আত্ম নির্ভর ভারত অভিযান নামের ওই প্রকল্পের মাধ্যমেই এই টাকা খরচ করা হবে। আর্থিক এই প্যাকেজের ফলে উপকৃত হবেন দেশের অভিবাসী শ্রমিক ও কৃষকরা। যাঁরা দেশের জন্য, জাতির জন্য দিন রাত এক করে পরিশ্রম করেন। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছে এই প্রকল্পের আর্থিক পরিমান দেশের জিডিপির প্রায় ১০ শতাংশ। 

আগামী দিনে দেশের মানুষের কাছে দেশীয় পণ্য কেনার অনুরোধ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেনে শুধু কেনাই নয় দেশীর পণ্য নিয়ে ক্রমাগত প্রচারও চালিয়ে যেতে হবে ভারতীদের। এই আর্থিক প্যাকেজের ফলে দেশের ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীরাও উপকৃত হবেন বলেও ঘোষণা করেছেন তিনি।  পাশাপাশি আগামী দিনে দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আরও দৃঢ় সংকল্প গ্রহণ করতে হবে সংকট মোকাবিলার জন্য। একবিংশ শতাব্দীতে স্বনির্ভর হওয়ার দিকেই জোর দিতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। 

করোনা সংকট নিয়ে বলতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন বিশ্ব প্রায় সবকটি দেশকেই বিধ্বস্ত করেছে এই মহামারী। আমাদের দেশেরও তার প্রভাব পড়েছে। এত ভয়ঙ্কর অবস্থা আগে কখনও দেখেনি বিশ্ববাসী। পাশাপাশি মাস্ক ব্যবস্থা ও নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার কথাও বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 


এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন লকডাউনের চতুর্থ পর্যায় শুরু হবে। আগামী ১৭ মে শেষ হচ্ছে তৃতীয় দফার লকডাউন। ১৮ মে থেকেই শুরু হয়ে যাবে লকডাউন ৪।  তবে তার আগেই দেশবাসীকে অবগত করানো হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন। লকডাউনের চতুর্থ পর্বে সম্পূর্ণ নতুন নিয়ম ও নতুন আইন কার্যকর হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। রাজ্যগুলির সুপারিশ বিবেচনা করে চতুর্থ লকডাউনের বিধিনিষেধ ও শিথিলতার  কথা ঘোষণা করা হবে বলেও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।