আজই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণ হবে। সূত্রের খবর সন্ধ্যে ৬টা নাগাদ মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণের কথা ঘোষণা করা হবে। তবে বুধবার সকাল থেকেই প্রধানমন্ত্রী মোদীর বাসভাবনে চিল নেতা মন্ত্রীদের ভিড়। প্রায় ৩৫ জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেত পারেন বলেও সূত্রের খবর। তালিকায় রয়েছে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, সর্বানন্দ সোনোয়ালের নাম। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছেন মীনাক্ষী লেখি, নারায়াণ রানে, ভূপেন্দ্র যাদব, অনুপ্রিয়া প্যাটেলও। 

তবে এদিন মন্ত্রীসভা সম্প্রসারণের পরে বেশ কিছু কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ঘাড়ে কোপ পড়তে পারে বলেও সূত্রের খবর। সরিয়ে দেওয়া হতে পারে দায়িত্ব থেকে। সূত্রের খবর ইতিমধ্যেই শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে মন্ত্রীত্ব ছেড়েছেন শিক্ষামন্ত্রী  রমেশ পোখরিয়াল নিশাঙ্ক ও শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গানওয়ার। গত কয়েক দিন ধরেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের পারফরম্যান্স নিয়ে বিষয়ে পর্যালোচনা করেছিলেন। সেই সূত্র ধরেই আরও কয়েকজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে সরিয়ে দেওয়া হতে পারে বলেও সূত্রের খবর। 

অন্যদিকে আগে মন্ত্রী হিসেবে কর্তব্যের সঙ্গে নিজের দায়িত্ব পালন করেছেন- এমন কয়েকজন মন্ত্রীকে আগামী দিনে আরও গুরু দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে বলেও সূত্রের খবর। তালিকায় প্রথমেই রয়েছে অনুরাগ ঠাকুরের নাম। এছাড়াও রয়েছেন, পারর্শোত্তম রুপালা আর জিকে রেড্ডি। তিন জনকেই রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এদিন শপথ গ্রহণে প্রত্যাশী মন্ত্রীদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাসভবনে পৌঁছাতে দেখা গেছে। 

আগামী বছর পাঁচ রাজ্য বিধানসভা নির্বাচন। তারপরের বছরও সাধারণ নির্বাচন। সবকিছু মাথায় রেখেই গুটি সাজাতে চাইছে বিজেপি। সেই কারণে দ্বিতীয়বার ক্ষমতা দখলের প্রায় ২ বছর পরেও কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় সম্প্রসারণের উদ্যোগ নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। তবে নতুন মন্ত্রিসভায় নীতিশের দলের কোনও প্রতিনিধি থাকবে কিনা তা নিয়েও রাজধানীর রাজনীতিতে চলছে গুঞ্জন। স্মৃতি ইরানি, পীযূষ গোয়েলসহ অনেক মন্ত্রীর হাতেই একের বেশি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকের দায়িত্ব রয়েছে। তাঁদের ওপর চাপ কমাতেই  মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণ করা হতে পারে বলেও সূত্রের খবর।