টিকটকের পর এবার কোপ পড়ল পাবজির ঘাড়ে। পাবজি সহ আরও ১১৮টি চিনা অ্যাপের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল ভারত।  কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফ থেকে এই তথ্য জানিয়ে বলা হয়ে ৬৯ ধারায় এই অ্যাপ গুলি নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। দেশের মানুষের নিরাপত্তা ও দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য এই চিনা অ্যাপগুলি নিষিদ্ধ করা হচ্ছে বলে জানান হয়েছে কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের পক্ষ থেকে। 

পূর্ব লাদাখ সীমান্তের উত্তেজনা ও গালওয়ানে ভারতীয় ও চিনা সেনাদের সঘর্ষের ঘটনায় ২০ জওয়ানের মৃত্যুর পর প্রথম দফায় টিকটকসহ ৫৯টি চিনা অ্যাপের ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞ জারি করা হয়েছিল। তারও পরে আরও ৪৯টি চিনা অ্যাপের ওপর কোপ পড়ে কেন্দ্রীয় সরকারের। দিন কয়েক আগেই পূর্ব লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ সীমারেখায় প্যাংগং লেকের কাছে চিনা সেনা জওয়ানরা ভারতীয় সেনা জওয়ানদের প্ররোচিত করতে উদ্যোগ নিয়েছিল বলে অভিযোগ ভারতের। যা নিয়ে আবারও উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে লাদাখ সীমান্ত। আর সেই পরিস্থিতিতেই  কোপ পড়ল পাবজির ওপর। এটি অনলাইন একটি গেম।ভারতে  ৩৩ মিলিয়ন পাবজি খোলোয়ার রয়েছেন বলেও জানিয়েছেন একটি রিপোর্ট। 

কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এই সিদ্ধান্তটি ভারতীয় সাইবার স্পেসের সুরক্ষা ও দেশের সার্বভৌমিকতা রক্ষার জন্য রীতিমত গুরুত্বপূর্ণ বলেই জানান হয়েছে। একই সঙ্গে জানান হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস প্ল্যাটফর্মে কিছু মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের অপব্যবহারের বিষয়ে অভিযোগ পয়েছিল। সেই পরিপ্রেক্ষিতে দেখা যায় ভারতীয় ব্যবহারকারীদের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচার করা হচ্ছে। সেই কারণেই জাতীয় সুরক্ষা ও অখণ্ডতার কথা মাথায় রেখেই এই অ্যাপগুলি নিষিদ্ধ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। 


লাদাখে চিন ভারত সীমানব্তে উত্তাপের পর এই নিয়ে  এখনও পর্যন্ত ২২৪টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হল ভারতে। এখনও ভারতীয় তথ্য মন্ত্রক আগেই জানিয়েছিল নজরে রয়েছে আরও ২৫০টি  চিনা অ্যাপ। যেগুলি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশের গ্রহকের তথ্য বিদেশে পাচার হয়ে যেতে পারে। যা দেশের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে আশঙ্কাজনক বলেও দাবি করা হয়েছিল।