সুপ্রিম কোর্টে ২০১৮ সালের আত্মহত্যাায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলায় অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পেলেন রিপাবলিক টিভির সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামী ও অন্যান্যরা। আর্কিটেক্ট অন্বয় নায়েক এবং তাঁর মায়ের আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে গত সপ্তাহে অর্ণব ও আরও দু'জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এদিন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচুড় এবং বিচারপতি ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুই বিচারকের বেঞ্চে এই আবেদনের শুনানি হয়।

দুই দিন আগেই বম্বে হাইকোর্ট অর্ণব গোস্বামীর জামিনের আবেদনের প্রত্যাখ্যান করেছিল। এদিন সুপ্রিম কোর্টে কিন্তু 'ব্যক্তিস্বাধীনতা'র কথা তুলে তাঁকে মুক্তি দিয়েছে। তবে অন্তর্বর্তীকালীন জামিনে মুক্তি পেতে গেলে অর্ণব গোস্বামীকে ৫০০০০ টাকা মূল্যের একটি ব্যক্তিগত বন্ড জমা দিতে হবে।

এদিন সুপ্রিম কোর্ট অর্ণব গোস্বামীর গ্রেফতারি এবং হাইকোর্টে তাঁর জামিনের আবেদন খারিজ হওয়ার জন্য মহারাষ্ট্র সরকার ও বম্বে হাইকোর্টের কড়া সমালোচনা করেছে। বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচুদ বলেছেন, সাংবিধানিক আদালত হয়েও হাইকোর্ট ব্যক্তিগত স্বাধীনতা প্রত্যাখ্যানের বিষয়ের সমাধানে যথেষ্ট ভূমিকা নিচ্ছে না বলে শীর্ষ আদালত অসন্তুষ্ট। আদালত আজ এইসব বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করলে ভবিষ্যতে ব্যক্তিগত স্বাধীনতা বলে আর কিছু থাকবে না বলে, সতর্ক করেন তিনি।

অর্ণবকে দুই বছরের পুরোনো একটি মামলায় গ্রেফতার করা নিয়ে মহারাষ্ট্র সরকারের সমালোচনা করে বলেন, কাউকে কোনঠাসা করার জন্য রাজ্য সরকারের এই ধরণের পদক্ষেপ নেওয়া অনুচিত। বিচারপতি চনদ্রচুর সাফ জানান, কারোর কোনও চ্যানেলটি পছন্দ না হলে তা দেকা বন্ধ করে দিলেই হল। কিন্তু তই বলে কোনও চ্যানেলকে বা ব্যক্তি-কে সরকার নিশানা বানাতে পারে না।