শনিবার সকালেই ঘোষণা হতে পারে বহু প্রতীক্ষিত অযোধ্যা মামলার রায়। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, শনিবার সকাল সাড়ে দশটার সময় রায় ঘোষণা করতে পারে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ। প্রায় চল্লিশ দিন ধরে শুনানি চলার পরে গত ১৬ অক্টোবর অযোধ্যা মামলার রায়দান স্থগিত রেখেছিলেন প্রধান বিচারপতি। শেষ পর্যন্ত শনিবার বহু প্রতীক্ষিত এই মামলার রায় ঘোষণা করবে সুপ্রিম কোর্ট। 

অশান্তির আশঙ্কায় রায় ঘোষণার আগে গোটা অযোধ্যাকে কার্যত দুর্গে পরিণত হয়েছে। প্রায় চার হাজার কেন্দ্রীয় আধা সামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে অযোধ্যায়। জরুরি প্রয়োজনে আরও নিরাপত্তা বাহিনীকে দ্রুত অযোধ্যায় নিয়ে যাওয়ার জন্য দু'টি হেলিকপ্টারকে প্রস্তুত রাখা হচ্ছে। এছাড়াও কুড়িটি অস্থায়ী জেলের বন্দোবস্ত করা হয়েছে। বিশেষ সতর্কতা রাখা হচ্ছে আটাত্তরটি জায়গায়। 

১৯৭৩ সালে কেশবানন্দ ভারতী মামলার শুনানি চলেছিল আটষট্টি দিন। যা সুপ্রিম কোর্টের ইতিহাসে দীর্ঘতম শুনানি হিসেবে নজির সৃষ্টি করেছিল। তার পরেই দ্বিতীয় দীর্ঘতম শুনানি চলল অযোধ্যা মামলায়। শীর্ষ আদালতে এই মামলার শুনানি চলেছে চল্লিশ দিন ধরে। আধার মামলার শুনানি চলেছিল  আটত্রিশ দিন ধরে। 

২০১০ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্টের অযোধ্যার বিতর্কতি ২.৭৭ একর জমি সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড, নির্মোহি আখড়া এবং রাম লালার মধ্যে সমান ভাগে বন্টন করার নির্দেশ দিয়েছিল। সেই রায়ের বিরোধিতা করে চোদ্দটি আবেদন দায়ের হয়েছিল শীর্ষ আদালতে। শেষ পর্যন্ত বিতর্কিত এই জমি নিয়ে শীর্ষ আদালত কী রায় দেয়, রুদ্ধশ্বাস উত্তেজনায় এখন সেদিকেই তাকিয়ে গোটা দেশ।