Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Tripura: 'খুঁটি পুজোটা হয়েছে', ত্রিপুরার সভায় বিপ্লবদেবের সরকারকে 'বিসর্জনের' হুঁশিয়ারি অভিষেকের

'খুঁটি পুজোটা হয়েই গিয়েছে, নির্বাচনে বিসর্জনের জন্য তৈরি থাকতে', ত্রিপুরার বিজেপি সরকারকে হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূলের যুবরাজ অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্যায়।  

 

TMC Leader Abhishek Banerjee  attacks CM Biplab Kumar Deb in Tripura RTB
Author
Kolkata, First Published Oct 31, 2021, 2:58 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

'খুঁটি পুজোটা হয়েই গিয়েছে, নির্বাচনে বিসর্জনের জন্য তৈরি থাকতে', ত্রিপুরার বিজেপি সরকারকে (BJP Govt in Tripura) হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূলের যুবরাজ অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্যায় । এদিন আগরতলায় রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবন সংলগ্ন রাস্তায় জনসভার শুরুতেই বিপ্লবদেবের সরকারকে তীব্র আক্রমণ করলেন  তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক (Abhishek Banerjee)।

আরও পড়ুন, Roshni Ali- হাইকোর্টে বাজি নিষিদ্ধ করার আর্জির পিছনে কে এই রোশনি আলি

এদিন ত্রিপুরায় বিজেপির সরকারকে তোপ দেগে অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্যায় বলেছেন, ' খুঁটি পুজোটা হয়েই গিয়েছে, তেইশের নির্বাচনে বিসর্জনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। তিনি বলেছেন, মমতার ছবি মাতায় করে ত্রিপুরায় ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে সরকার প্রতিষ্ঠা করবে তৃণমূল। এরপরেই তিনি বলেন, কাল কোর্টে জিতেছি, এবার ভোটে জিতব। একমাত্র মমতাই পারেন শিক্ষা দিতে। প্রসঙ্গত, আদালতের (Tripura High Court) রায়েই সম্ভব হল রবিবার অভিষেকের সভা ত্রিপুরায়। শেষ অবধি অভিষেকের সভার অনুমতি দিয়েছে ত্রিপুরা হাইকোর্ট।  ত্রিপুরা হাইকোর্ট জানিয়েছে, রবীন্দ্রভবনের সামনেই অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্য়ায় সভা করতে পারবেন। তবে করোনার কারণে ৫০০ জনের বেশি জমায়েত হওয়া যাবে না। আর হাইকোর্টের অনুমতি পেয়ে এদিন সভায় বিজেপিকে আক্রমণ করেন । এদিন তিনি বলেন,  এদিন ত্রিপুরার বিমানবন্দর এলাকাতেও সারি বদ্ধ মানুষকেও' সাক্ষাত করা থেকে বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। বিজেপির ভয়, যদি তাঁরা চলে যান তৃণমূলের জনসভায়। একবার ভোটের সুযোগ পেলে অনুবীক্ষণ যন্ত্র দিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না।' তবে এখানেও শেষ নয় তিনি বারবার একুশের বিধানসভায় বাংলায় বিজেপির হারের কথা তুলে এনে ত্রিপুরার বিজেপি সরকারকে বলে তোপ দাগেন অভিষেক।

আরও পড়ুন, Manohar Pukur Murder- বেকারত্ব নাকি অসুখী দাম্পত্য, কী কারণে স্ত্রী-কে খুন করলেন স্বামী

 অপরদিকে অভিষেক কেন্দ্রীয় সরকারকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বলেন, 'দিল্লি নয়, ত্রিপুরাই আগামীদিন দিল্লি পরিচালনা করবে।'তবে ত্রিপুরার মাটিতে বিজেপির সঙ্গে বামেদেরও একহাত নেন তিনি। 'সিপিএমের সময় ছিল হার্মাদ, আর এখন আছে উন্মাদ', নাম না করেই ত্রিপুরার বিপ্লব দেবের সরকারকে কটাক্ষ করেন অভিষেক। প্রসঙ্গত, ২০২৩-এর বিধানসভা নির্বাচনে ত্রিপুরার দিকে নজর তৃণমূলের। তার আগে, আগামী ২৫ নভেম্বর ত্রিপুরায় পুরভোট। আগরতলা পুরনিগমের পাশাপাশি, ১৩টি পুর পরিষদ ও ৬টি নগর পঞ্চায়েতে ভোট হবে। ভোটগ্রহণ হবে ১৮টি মহকুমার মোট ৩৩৪টি ওয়ার্ডে। আর এই নির্বাচনে সেখানে সব আসনে লড়ার কথা জানিয়েছে তৃণমূল।উল্লেখ্য, আগরতলায় অভিষেকের সভা ঘিরে প্রথম থেকেই তৃণমূল এবং বিজেপির তরজা। অভিষেকের সভার অনুমতি দেয়নি পুলিশ। পরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। তাই অভিষেকের সভা ঘিরে শুরু থেকেই নজর রাজনৈতিক মহলের।

 

আরও দেখুন, বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

আরও দেখুন, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা, থাকল ছবি সহ ঠিকানা  

আরও দেখুন, মাছ ধরতে ভালবাসেন, বেরিয়ে পড়ুন কলকাতার কাছেই এই ঠিকানায়  

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios