তেলেঙ্গানায় হায়দরাবাদের কাছে একটি লোকাল ট্রেনের সঙ্গে এক্সপ্রেস  ট্রেনের সংঘর্ষে ১২ জন আহত হয়েছেন। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে কয়েক জনের অবস্থা আশঙ্কা জনক বলে জানা গিয়েছে। লোকাল ট্রেনের চালক আটকে গিয়েছেন, তাঁকে উদ্ধারের চেষ্টা করছেন উদ্ধারকর্মীরা। জানা গিয়েছে, তিনি ইঞ্জিনের সঙ্গে আটকে গিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। গাড়ির চালকের কাছে অক্সিজেন পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা চলছে।

কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীযূশ গোয়েল জানিয়েছেন,  ঘটনার পর নজর রাখা হচ্ছে। যত দ্রুত সম্ভব ট্রেন থেকে আহত যাত্রীদের বের করে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি আরও মন্তব্য করেন, রেলের তরফে সমস্ত ধরনের সাহায্য দেওয়া হবে। আহতদের চিকিৎসার খরচ রেল দপ্তর দেবে বলে জানা গিয়েছে। সোমবার সকালে হায়দরাবাদে লিনগামপাল-ফলকনামার সঙ্গে কুরনুল সিটি-সেকেন্দ্রাবাদ হুন্ডরি এক্সপ্রেসের সংঘর্ষ হয়। লিনগামপাল-ফলকনামার তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়ে গিয়েছে। কুরনুল সিটি-সেকেন্দ্রাবাদ হুন্ডরি এক্সপ্রেসের চারটি বগি লাইনচ্যুত হয়ে গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ঘটনাস্থলে উদ্ধারকর্মীরা উপস্থিত হয়েছেন। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

উদ্ধারকর্মীদের তরফে জানানো হয়েছে,  এখনও বহু যাত্রী ট্রেনের মধ্যে আটকা রয়েছেন। তবে ঠিক কতজন যাত্রী আটকে পড়েছেন, সেই বিষয়ে প্রাথমিকভাবে কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। লোকাল ট্রেনটির চালক ইঞ্জিনের সঙ্গে খুব খারাপভাবে আটকে গিয়েছেন। যার মধ্যে তাঁকে উদ্ধারে সমস্যা দেখা দিয়েছে।  কেন দুটি ট্রেনের মধ্যে এই সংঘর্ষ হল, যাত্রী দের উদ্ধারের পর সেই বিষয়ে তদন্ত শুরু করবে ভারতীয় রেল।